সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত রওশনের

প্রকাশ : ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:৪৩

অনলাইন ডেস্ক
ama ami

ময়মনসিংহ-৭ আসন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিলেন জাতীয় পার্টির জ্যেষ্ঠ কো-চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ।

মহাজোটের শরিক দল আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে সমর্থন দিয়ে ময়মনসিংহ-৭ আসনে নিজের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের জন্য বুধবার রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেছেন তিনি।

তবে ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় একাদশ সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাহারের সময়সীমা পেরিয়ে যাওয়ায় এটি গ্রহণের সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক রিটার্নিং কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস।

ময়মনসিংহ-৪ আসনের পাশাপাশি ময়মনসিংহ-৭ আসনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন রওশন এরশাদ। ময়মনসিংহ-৭ আসনে আওয়ামী লীগ হাফেজ রুহুল আমিন মাদানীকে প্রার্থী করেছে। তবে ময়মনসিংহ-৪ আসনে কোনো প্রার্থী রাখেনি আওয়ামী লীগ।

এরই মধ্যে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন করেন রওশন। রওশন চিঠিতে লিখেছেন, ‘বৃহত্তর ঐক্যের স্বার্থে মহাজোট মনোনীত প্রার্থী মাদানীকে সমর্থন দিয়ে আমি সরে দাঁড়ালাম।’

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, মহাজোটের শরিক আওয়ামী লীগের প্রার্থী রুহুল আমিন মাদানীকে সমর্থন দিয়ে বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তিনি ময়মনসিংহ-৭ আসন থেকে নির্বাচন করবেন না বলে জানিয়েছেন। বুধবার এ কথা জানিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার সংক্রান্ত একটি চিঠি আমাকে পাঠিয়েছেন তিনি। তবে গত সোমবার প্রতীক বরাদ্দের পর নির্বাচন কমিশনের আইন অনুযায়ী প্রার্থিতা প্রত্যাহারের আর কোনো সুযোগ নেই তার।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ময়মনসিংহ-৭ আসনটি জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দিয়েছিল আওয়ামী লীগ। জাতীয় পার্টির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এমএ হান্নান এ আসন থেকে নির্বাচিত হন। যুদ্ধাপরাধের মামলায় গ্রেফতার হয়ে এখন কারাগারে রয়েছেন তিনি।

পিডিএসও/রিহাব