সাহারা ছাড়া মনোনয়ন প্রত্যাশীদের এক মঞ্চে আনলেন হাবিব হাসান

প্রকাশ : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:৫৫ | আপডেট : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২০:১৪

নিজস্ব প্রতিবেদক

বৃহত্তর উত্তরা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী স্থানীয় নেতাদের এক মঞ্চে আনলেন অন্যতম স্থানীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী হাবিব হাসান। ঢাকা-১৮ আসনের অন্যতম প্রধান মনোনয়ন প্রত্যাশী ও বর্তমান এমপি সাহারা খাতুন ছাড়া স্থানীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সবাই একমঞ্চে এসে বললেন, ১০ বছর হয়েছে আর নয়, এবার নিজেদের দিকে তাকানোর সময় হয়েছে।

নিজেদের মাঝে অনেকেই এমপি নির্বাচন করার ক্ষমতা রাখেন। তাই নমিনেশন এবার স্থানীয়দের মাঝে নিয়ে আসতে একত্রে কাজ করতে হবে। আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বৃহত্তর উত্তরা তথা ঢাকা-১৮ আসনে স্থানীয় নতুন মুখ চেয়ে সকল মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতারা একই সুরে কথা বলেন। 

শনিবার দুপুরে তুরাগের আহালিয়া খেলার মাঠে ঢাকা-১৮ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনায়ন প্রত্যাশী ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারনণ সম্পাদক হাবিব হাসান কর্তৃক আয়োজিত ঈদ পূর্নমিলনী অনুষ্ঠানে এমন বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের স্থানীয় অন্তত ৪ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতা। এর বাইরে বৃহত্তর উত্তরা তথা বিমানবন্দর, দক্ষিণখান, উত্তরখান, উত্তরা পূর্ব, পশ্চিম ও তুরাগ থানা আওয়ামী লীগের অধিকাংশ নেতাকর্মীর মুখেই ছিল স্থানীয় প্রার্থীর দাবি।

সভাপতির বক্তব্যে হাবিব হাসান বলেন, প্রতিবার ঈদ পূর্নমিলনী অনুষ্ঠান হলেও আজকের এই অনুষ্ঠানের বিশেষ একটা উদ্যেশ্য রয়েছে। কি উদ্যেশ্য রয়েছে তা আজকের অনুষ্ঠানে আগত নেতৃবৃন্দ উনাদের স্বাগতিক বক্তব্যে বলবেন বলে দুপুর দুইটায় অনুষ্ঠানের আনুষ্ঠানিক উদ্ধোধন করেন তিনি। এসময় উত্তরা পশ্চিম থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট মনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী রবিন বলেন, ঢাকা ১৮ আসনে একাধিক হ্যাভিওয়েট প্রার্থী রয়েছেন, এই বিষয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনা মাঠপর্যায়ে তদন্ত করছেন, তদন্ত সাপেক্ষে তিনি যাকে মনোনায়ন দিবেন, বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আমরা তাকেই বিজয়ী করবো।

এসময় নগর উত্তর আওয়ামী লীগের ত্রান ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক, এস এম মাহাবুন বলেন, বহিরাগত কেউ আমাদের স্থানীয়দের দুঃখ কষ্ট বুঝেনি, বুঝবেও না। মানীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট আবেন, তদন্ত সাপেক্ষে আওয়ামী লীগের একাধিক হেভিওয়েট প্রার্থীদের থেকে বাছাই করে স্থানীয় প্রার্থীকেই যেন ঢাকা ১৮ আসনে মনোনায়ন দেওয়া হয়। এসময় দক্ষিণখান আদর্শ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ঢাকা উত্তর আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম তোফাজ্জল হোসেন ঢাকা-১৮ আসনের বর্তমান এমপি এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের প্রশংসা শেষে উনার দীর্ঘায়ু কামনা করে বলেন, এখন পর্যন্ত ঢাকা ১৮ আসনে স্থানীয় কোনও প্রার্থীকে মনোনায়ন দেয়া হয়নি, বর্তমানে ১৮ আসনে স্থানীয় একাধিক যোগ্য প্রার্থী রয়েছে। চাওয়ার অধিকার সবার রয়েছে। বর্তমান এমপি সাহারা খাতুন সম্পর্কে তিনি বলেন, আপার বয়স হয়েছে, উনার এখন আমাদের দিকে দেখা উচিত। সমস্যা হচ্ছে বয়স হয়েছে এটা শুনলে নাকি উনি কষ্ট পান। আমি বলবো কষ্ট পাওয়ার কি আছে, মানুষের বয়সতো হতেই পারে। 

এসময় অপর মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতা নাজিম উদ্দিন বলেন, আমরা আমাদের দাবি নিয়ে এগিয়ে যাবো। তবে সব সিদ্ধান্ত নেত্রীর। উনি যা করবেন আমরা তাই মেনে নিবো। 

এসময় স্বাগতিক বক্তব্য রাখেন, পশ্চিম থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি মনোয়ারুল ইসলাম রবিন, ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সালাহ উদ্দিন আহমেদ খোকা, বিমানবন্দর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাকসুদুর রহমান, উত্তরখান ইউপি চেয়ারম্যান মো. কামাল হোসেন, উত্তরখান থানা সাধারণ সম্পাদক জয়নাল মেম্বার, উত্তরা পূর্ব থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মতি, দক্ষিণখান ইউপি সাধারণ সম্পাদক পনু মেম্বারসহ অনেকে। এছাড়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, উত্তরা পূর্ব থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি কতুব উদ্দিন, বিমানবন্দরের সহসভাপতি সোহেল রেজাসহ বিভিন্ন থানার আওয়ামী লীগের প্রায় শতাধিক পদদারী নেতা। 

এছাড়া যুবলীগ মহানগর উত্তরের সহ সভাপতি ডি এম শাহীন, সহ সম্পাদক আবুল কালাম রিপন, উত্তরের তথ্য সম্পাদক সেলিম খান, যুবনেতা আকাশসহ ছাত্রলীগের স্থানীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন উত্তরা পশ্চিম থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাঈদ সিদ্দিকী কাক্কা।  

পিডিএসও/রিহাব