বিজয় দিবসে যেসব সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকবে

প্রকাশ : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭, ০০:০০ | আপডেট : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৫:৪৮

নিজস্ব প্রতিবেদক

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে আজ শনিবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের প্যারেড স্কয়ারে সম্মিলিত সামরিক বাহিনীর কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হবে। এ কারণে সকাল ৭টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত ওই এলাকার কয়েকটি সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে এসব সড়কে আমন্ত্রিত অতিথিদের স্টিকারযুক্ত যানবাহন চলাচল করতে পারবে। এ ছাড়া গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টা থেকে আজ সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ভিভিআইপি, ভিআইপি ও আমন্ত্রিত অতিথিদের সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে ফুল দেওয়া উপলক্ষে ঢাকা থেকে আমিনবাজার হয়ে সাভার স্মৃতিসৌধ পর্যন্ত সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকবে। গতকাল ঢাকা মহানগর পুলিশের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

যেসব সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকবে : শেরেবাংলা নগরের প্যারেড স্কয়ার-সংলগ্ন এলাকায় আমন্ত্রিত অতিথিদের স্টিকারযুক্ত যানবাহন ছাড়া সকাল ৭টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত অন্য কোনো যান চলবে না। এর মধ্যে আছে জাতীয় সংসদ ভবন-সংলগ্ন খেজুর বাগান ক্রসিং থেকে বিজয় সরণির উড়োজাহাজ ক্রসিং হয়ে রোকেয়া সরণি থেকে মিরপুর-১০ নম্বর গোলচত্বর পর্যন্ত। শ্যামলীর শিশুমেলা ক্রসিং থেকে আগারগাঁও লাইট ক্রসিং হয়ে রোকেয়া সরণি পর্যন্ত। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সামনের নতুন সড়ক দিয়ে আগারগাঁও লিংক রোড পর্যন্ত। বিজয় সরণি ক্রসিং থেকে উড়োজাহাজ ক্রসিং এবং ক্রিসেন্ট লেক হয়ে গণভবন ক্রসিং পর্যন্ত। এ ছাড়া শেরেবাংলা নগরের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় হয়ে গণভবন স্কুল ক্রসিং এবং পরিকল্পনা কমিশন থেকে বিআইসিসি ক্রসিং পর্যন্ত যান চলাচল বন্ধ থাকবে।

আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য নির্দেশনা : প্যারেড স্কয়ারে সম্মিলিত সামরিক বাহিনীর কুচকাওয়াজে যেতে আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য কিছু নির্দেশনা দিয়েছে ডিএমপির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে। সেখানে বলা হয়েছে, আমন্ত্রণপত্রের পথনির্দেশনা অনুযায়ী নির্ধারিত গেট দিয়ে প্যারেড স্কয়ারের কুচকাওয়াজ এলাকায় ঢুকতে এবং কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশের নির্দেশিত স্থানে গাড়ি পার্ক করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে ফুল দিতে আজ রাত সাড়ে ৪টার দিকে ভিভিআইপি, ভিআইপি ও আমন্ত্রিত অতিথিরা ঢাকা থেকে আমিনবাজার হয়ে সাভার স্মৃতিসৌধে যাবেন।

এ কারণে গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে ৩টা থেকে পরদিন সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত এ সড়কে বাস, মিনিবাস, ট্রাক, লরিসহ বড় গাড়িগুলোকে গাবতলীর আমিনবাজার সেতু ও সাভার সড়কের পরিবর্তে বিকল্প রাস্তা হিসেবে ঢাকার বিমানবন্দর সড়ক হয়ে আবদুল্লাহপুর ক্রসিং এবং আশুলিয়া সড়কে চলতে বলা হয়েছে। আরিচা থেকে আমিনবাজার হয়ে ঢাকাগামী গাড়ির চালককে নবীনগর বাজার থেকে আশুলিয়া হয়ে ঢাকায় প্রবেশ করতে হবে। এ ছাড়া টাঙ্গাইল থেকে আশুলিয়া হয়ে ঢাকাগামী যানবাহন কালিয়াকৈর-গাজীপুর চৌরাস্তা-টঙ্গী হয়ে ঢাকায় ঢুকবে।

Ñকুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের আমন্ত্রণপত্রের সঙ্গে সরবরাহ করা ক-বিশেষ, ক-১, ক-২, সক, বিনা, শ, সক-১, সক-২, সম, ম-২, সব-১ ও সব অক্ষরের স্টিকার গাড়ির উইন্ড স্ক্রিনে প্রদর্শন করতে বলা হয়েছে। ক-বিশেষ, ক-১, ক-২, সক, বিনা, শ, সক-১, সক-২ সম, ম-২,

সব-১ ও সব অক্ষরের স্টিকারযুক্ত যানবাহন বেগম রোকেয়া সরণি হয়ে আমন্ত্রণপত্রের পথনির্দেশনা অনুযায়ী নির্ধারিত প্রবেশ গেট দিয়ে কুচকাওয়াজ এলাকায় প্রবেশ করতে হবে এবং কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ কর্তৃক নির্দেশিত স্থানে গাড়ি পার্ক করতে হবে। আমন্ত্রিত অতিথিদের যানবাহনের চালকদের নিজ নিজ গাড়িতে অবস্থান করতে হবে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, সামরিক, আধাসামরিক, দেশি-বিদেশি কূটনীতিক, মুক্তিযোদ্ধাসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বঙ্গভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। তাদের যানবাহন চলাচলের জন্য বঙ্গভবনের আশপাশ এলাকায় চলাচলকারী গাড়ির চালকদের ওইদিন দুপুর ১২টা থেকে বঙ্গভবনের অনুষ্ঠান শেষ না হওয়া পর্যন্ত বিকল্প পথে চলতে হবে।

জিরো পয়েন্ট থেকে গুলিস্তান আন্ডারপাস হয়ে রাজউক ক্রসিং পর্যন্ত জনসাধারণের যান চলাচল বন্ধ থাকবে। শুধু উড়ালসড়ক ব্যবহারকারী যানসমূহ প্রবেশ করতে পারবে। এ ছাড়া আহাদ পুলিশ বক্স থেকে ইত্তেফাক মোড় পর্যন্ত, মতিঝিলের আলিকো থেকে দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা হয়ে রাজউক ক্রসিং পর্যন্ত যান চলাচল বন্ধ থাকবে। পার্ক রোডের উত্তর মাথা থেকে ইত্তেফাক অভিমুখে কোনো প্রকার যান চলাচল করা যাবে না। শাপলা চত্বর ও দৈনিক বাংলা থেকে রাজউক-গুলিস্তানগামী সব বাস দৈনিক বাংলা, ইউবিএল ক্রসিং, প্রেস ক্লাব হয়ে চলাচল (আসা-যাওয়া) করবে কিংবা অন্য কোনো সুবিধাজনক বিকল্প রাস্তা ব্যবহার করবে। দৈনিক বাংলা থেকে রাজউক অভিমুখী ও ২৪ তলা থেকে রাজউক অভিমুখে কোনো বাণিজ্যিক গাড়ি চলাচল করবে না।

পিডিএসও/মুস্তাফিজ

"