সম্রাটের কার্যালয়েও ইলেকট্রিক শক মেশিন

প্রকাশ : ০৬ অক্টোবর ২০১৯, ২০:৪৫

অনলাইন ডেস্ক

যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী ওরফে সম্রাটের কার্যালয়ে মিলেছে ইলেকট্রিক শক মেশিন। একই যন্ত্র পাওয়া গেছে রিমান্ডে থাকা যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার টর্চার সেলেও। 

রোববার দুপুর থেকে সন্ধ্যায় পর্যন্ত সম্রাটের কাকরাইলের অফিসে অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযান শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে ইলেকট্রিক শক মেশিন পাওয়ার কথাটি গণমাধ্যমকে জানান র‌্যাব-১-এর অধিনায়ক সারোয়ার বিন কাশেম।

সংবাদ সম্মেলনে সারোয়ার বিন কাশেম বলেন, ‘তার (সম্রাট) কার্যালয় থেকে ১৯ বোতল বিদেশি মদ এবং দুটি ইলেকট্রিক শক মেশিন উদ্ধার করা হয়েছে।'

এসব ইলেকট্রিক শক মেশিন দিয়ে মানুষকে নির্যাতন করা হতো কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে র‌্যাব-১-এর অধিনায়ক বলেন, 'আমরা সম্রাটকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করব।  জিজ্ঞাসবাদের পরই এ বিষয়ে বলা যাবে।'  

এর আগে গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাতে যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার একটি টর্চার সেলের সন্ধান পায় র‌্যাব। গ্রেপ্তারের পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদে টর্চার সেলের কথা স্বীকার করেন খালেদ। কমলাপুরের একটি ভবনে ওই টর্চার সেলের সন্ধান পাওয়া যায়।

সেই টর্চার সেল থেকে দুটি ইলেকট্রিক শক দেওয়ার অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি, গায়ের চামড়া জ্বলে-জ্বালাপোড়া করে এমন বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি, বিপুল পরিমাণ লাঠিসোটা, হকিস্টিকসহ অনেক কিছু উদ্ধার করেছিল র‌্যাব। 

আজকের অভিযান শেষে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, 'গতকাল (শনিবার) গ্রেপ্তারের সময় আরমানকে মদ্যপায়ী অবস্থায় পাওয়া যায়। এ সময় তাদের কাছে থেকে কিছু বিদেশি মদও উদ্ধার করা হয়। তাই সেখানেই তাকে ছয় মাসের জেল দেওয়া হয়েছে। আর আজকে সম্রাটের কার্যালয়ে অভিযান চলাকালে সেখান থেকে দুটি ক্যাঙ্গারুর চামড়া উদ্ধার করা হয়েছে। এ কারণে ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটকে ছয়মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১-এর অধিনায়ক সারোয়ার বিন কাশেম বলেন, 'গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল রাতে আরমান ও সম্রাটকে কুমিল্লা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর সম্রাটের দেওয়া তথ্যমতে আজ দুপুর থেকে তার এই কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়েছে। এ সময় এখান থেকে একটি পিস্তল, একটি ম্যাগজিন, পাঁচ রাউন্ড গুলি, ১১৬০ পিস ইয়াবা, ১৯ বোতল বিদেশি মদের বোতল ও দুটি ক্যাঙারুর চামড়া উদ্ধার করা হয়েছে।’

সম্রাটের বিরুদ্ধে মাদক, অস্ত্র ও বন্যপ্রাণী আইনে মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানায় র‌্যাব। 

ক্যাসিনো বিরোধী অভিযান শুরুর পর সম্রাটের নাম আসার পর থেকেই তাকে নিয়ে নানা গুঞ্জন রয়েছে। অভিযান শুরুর পর হাইপ্রোফাইল কয়েকজন গ্রেপ্তার হলেও খোঁজ মিলছিল না সম্রাটের। এসবের মধ্যেই তার দেশত্যাগেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এরপর গতকাল শনিবার রাত থেকে তার গ্রেপ্তার হওয়ার খবর আসলেও রোববার সকালে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পিডিএসও/রি.মা