ডেঙ্গুর বিস্তার রোধে জনসম্পৃক্ততা জরুরি : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

প্রকাশ : ১৭ আগস্ট ২০১৯, ১৮:১৩ | আপডেট : ১৭ আগস্ট ২০১৯, ১৮:৩১

অনলাইন ডেস্ক

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, ডেঙ্গুর বিস্তার রোধে জনসচেতনতা ও জনসম্পৃক্ততা জরুরি। বাংলাদেশ স্কাউটের কার্যক্রম দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত বিস্তৃত, কাজেই এ কাজে স্কাউটদের কাজে লাগাতে হবে। 

তিনি বলেন, বসতবাড়ি ও আঙ্গিনা পরিস্কারের পাশাপাশি ড্রেন, লেক, খাল প্রভৃতিও পরিষ্কার রাখতে হবে এবং বায়ুদূষণ ও নদীদূষণের মত বিষয়গুলোও বিবেচনায় রাখতে হবে।

শনিবার সকালে রাজধানীর কাকরাইলে জাতীয় স্কাউট ভবনের শামস্ হলে 'পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ' বিনির্মানে ডেঙ্গু সচেতনতাসহ অন্যান্য দুর্যোগকালীন সময়ে উত্তম সেবা প্রদানের লক্ষ্যে ৯টি সংস্থা/বিভাগ/ মন্ত্রণালয়ের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। 

এই বহুপক্ষীয় সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষরকারী ৯টি সংস্থা/ বিভাগ/ মন্ত্রণালয় হলো, বাংলাদেশ স্কাউটস, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার বিভাগ, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ, স্বাস্থ্য সেবা অধিদপ্তর, এটুআই, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এবং ই-কমার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ।

চুক্তি অনুযায়ী পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সংক্রমিত রোগ প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ ও বিশ্লেষণের মাধ্যমে প্রযুক্তির সহায়তায় নাগরিক পর্যায়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে যে যার অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করবে।

বাংলাদেশ স্কাউটসের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মূখ্য সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো.আতিকুল ইসলাম, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান ও  বাংলাদেশ স্কাউটস এর প্রধান জাতীয় কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব শাহ কামাল, স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব ইউসুফ হারুন, ই-ক্যাব সভাপতি শমী কায়সারসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থা/ বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকতাবৃন্দ। 

চুক্তি স্বাক্ষরের পর মন্ত্রী ‘স্টপ ডেঙ্গু’ নামে একটি বিশেষায়িত অ্যাপের উদ্বোধন করেন। ই-ক্যাব বাংলাদেশের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অ্যাপটি তৈরিতে কারগরি সহায়তা প্রদান করে ই-পোস্ট ও বিডি ইয়ুথ।

‘স্টপ ডেঙ্গু’ অ্যাপ ব্যবহারের মাধ্যমে সারাদেশের মশার প্রজনন স্থানের ম্যাপিং করা হবে। ফলে সংশ্লিষ্ট দপ্তর/সংস্থা সমূহ যথাযথ কার্যক্রম গ্রহণ করতে পারবে।  

পিডিএসও/তাজ