ক্ষতিপূরণ দাবির পর ডেঙ্গু আক্রান্তের বাড়িতে মেয়র খোকন

প্রকাশ : ১৩ জুলাই ২০১৯, ১৬:২২

অনলাইন ডেস্ক

ডেঙ্গু আক্রান্ত হওয়ায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কাছে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করে উকিল নোটিস পাঠানোর একদিন পর সেই রোগীকে দেখতে গেলেন মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী তানজিম আল ইসলামের স্ত্রী সুমি আক্তার সম্প্রতি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হন। এজন্য ক্ষতিপূরণ দাবি করে গত বৃহস্পতিবার ডিএসসিসির মেয়র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে আইনি নোটিস পাঠান তানজিম। তবে শনিবার ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত আইনজীবীর স্ত্রীকে দেখতে তাদের খিলগাঁওয়ের বাড়িতে যান মেয়র খোকন। 

আইনজীবীর আইনি নোটিসের বিষয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, বিষয়টি করপোরেশনের আইনজীবীরা দেখবেন। আমাদের একজন সম্মানিত নাগরিক ক্ষতিপূরণ চেয়ে আইনি নোটিস পাঠিয়েছেন। সেটি আমাদের আইনজীবীরা দেখবেন। কিন্তু আমি মনে করেছি, একজন মেয়র হিসেবে একজন সংক্ষুব্ধ নাগরিকের পাশে আমার থাকা প্রয়োজন। সে মানবিক বোধ থেকে আমি তার তার স্ত্রীকে দেখতে এসেছি।

মেয়র যাওয়ার পর আইনজীবী তানজিম সাংবাদিকদের বলেন, আমার আইনি নোটিস শুধু ক্ষতিপূরণ নয়, প্রতিবাদের একটি ভাষা। আমি চাই, আর কেউ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত না হোক। নগর কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে সচেতন থাকুক।

সাঈদ খোকন সাংবাদিকদের বলেন, ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় নগর কর্তৃপক্ষ ‘সর্বাত্মক প্রচেষ্টা’ চালাচ্ছে। ডেঙ্গু মোকাবেলায় আমরা কার্যক্রম পরিচালনা করছি। অচিরেই সম্মানিত নগরবাসীকে ডেঙ্গুমুক্ত শহর উপহার দেব আমরা। এসময় ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে কর্পোরেশনের পাশাপাশি নাগরিক সচেতনতার উপর জোর দেন মেয়র। ডেঙ্গু আক্রান্তের পরিমাণ ঢাকায় দিন দিন বাড়লেও এ নিয়ে নগরবাসীকে আতঙ্কিত না হওয়ার অনুরোধ জানান খোকন।

তিনি বলেন, আপনারা আতঙ্কিত হবেন না। নগর কর্তৃপক্ষ আপনাদের পাশে আছে। আগামীকাল থেকে প্রতিটি ওয়ার্ডে আমাদের ভ্রাম্যমান মেডিকেল টিম আপনাদের সেবায় কাজ করবে। বিনামূল্য চিকিৎসা দেবে, বিনামূল্যে ওষুধ সরবরাহ করবে। কেউ ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল টিমের কাছে যেতে না পারলে ফোন করার পরামর্শ দিয়ে মেয়র বলেন, তাহলে আমাদের স্বাস্থ্যকর্মীরা আপনাদের বাসায় চলে যাবে। 

পিডিএসও/তাজ