মিয়ানমার কথা দিয়ে কথা রাখছে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশ : ১২ জুন ২০১৯, ১২:৫৩ | আপডেট : ১৩ জুন ২০১৯, ০৮:৩৪

অনলাইন ডেস্ক

রোহিঙ্গা ইস্যুকে প্রাধান্য দিয়ে সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কূটনীতিকদের ব্রিফ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। বুধবার বেলা ১১টার দিকে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় তিনি এ ব্রিফ করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, সাম্প্রতিককালে মিয়ানমারের মন্ত্রী বলেছেন—বাংলাদেশ থেকে যেসব রোহিঙ্গা যাচ্ছে না এর জন্য বাংলাদেশ দায়ী। বাংলাদেশ কোনো ধরণের কো-অপারেশন করছে না। তার এ বক্তব্য সঠিক নয়। বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে সব সময় প্রস্তুত। কিন্ত মিয়ানমার বারবার কথা দিয়ে কথা রাখছে না। রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার কথা ছিল মিয়ানমারের। কিন্তু তাদের অসহযোগিতার কারণে সম্ভব হয়নি। রোহিঙ্গাদের কারণে বাংলাদেশের ভূখণ্ডে বিভিন্ন রকম অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, ৬ মাস আগে যখন মিয়ানমারের জয়েন্ট কমিশনের সঙ্গে আমাদের বৈঠক হয় তখন তারা বলেছিল—রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে তারা কাজ করছে। তারা বারবার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন রোহিঙ্গাদের নিয়ে যাবেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত একজন রোহিঙ্গাও ফেরত যায়নি। এমনকি মিয়ানমারের নো-ম্যান্সল্যান্ডে যারা আছেন তারাও ফেরত যায়নি।

এ কে আবদুল মোমেন বলেন, আমরা প্রতিবেশী দেশের বিরুদ্ধে কিছু বলতে চাই না। কারণ, তারা আমাদের বন্ধু। কিন্তু তারা রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে মিথ্যা বলছে। এমন ডাহা মিথ্যা আমরা কেমন করে হজম করবো। আবার তাদের অনুরোধ করবো রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য। রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে তাদের বন্ধুপ্রতীম দেশগুলোর প্রতিও অনুরোধ জানাবো।

আজকের আলোচনায় কি সিদ্ধান্ত আসলো—সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা আমাদের অবস্থান সবাইকে জানিয়েছি। তারা একবাক্যে আমাদের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন। মিয়ানমার বিভিন্ন লোক বা সংস্থা দিয়ে যেসব রিপোর্ট তৈরি করছে তা ডাহা মিথ্যা।

পিডিএসও/হেলাল