আবরারের নামে ফুটওভার ব্রিজ

শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরার আহ্বান মেয়র আতিকুলের

প্রকাশ | ২০ মার্চ ২০১৯, ১২:৫৭ | আপডেট: ২০ মার্চ ২০১৯, ১৩:৪৮

অনলাইন ডেস্ক

বাসচাপায় নিহত বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরীর নামে রাজধানীর প্রগতি স্মরণীতে ফুটওভার ব্রিজের কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম। এ সময় সড়কে দ্রুত শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার আশ্বাস দিয়ে ছাত্রদের ক্লাসে ফেরারও অনুরোধ জানান তিনি।

ফুটওভার ব্রিজ উদ্বোধনের সময় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, আমরা আবরারের এই অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুর ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করছি। ছাত্রদের দাবি অনুযায়ী প্রগতি স্মরণীতে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছি। সেটি আজকে উদ্বোধন করছি। অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা মেনে নেওয়ার মতো না। আগামী দুই মাসের মধ্যে এটি চালু হবে। ব্রিজটি আমরা আবরারের নামে করেছি।

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ দিয়েছেন। দুই সিটি করপোরেশনের একটি সম্মিলিত মিটিং আছে। নির্দিষ্ট স্থান ছাড়া অন্য কোথাও থামানো হলে ব্যবস্থা নেব। আমি মালিকদের সঙ্গে কথা বলেছি। আমরা সবার কাছে সহযোগিতা চাচ্ছি। প্রত্যেকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে দুজন করে করে প্রতিনিধি নিয়ে একটি ছাত্র কাউন্সিল করে আমাদের সঙ্গে বৈঠকে বসে সুপারিশ করেন। আমরা মনে করি, নতুন প্রজন্মকে নিয়ে এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করব।

তিনি আরো বলেন, আমরা চাই রাস্তায় আর যাতে কোনো শিক্ষার্থীকে অনাকাঙ্ক্ষিত জীবন দিতে না হয়। অতি জরুরি ভিত্তিতে যেসব স্থানে ফুটওভার ব্রিজ দরকার সেটা চিহ্নিত করতে ডিএমপিকে অনুরোধ করছি।

শিক্ষার্থীদের দাবি মানার আশ্বাস দিয়ে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ছাত্রদের আমি অনুরোধ করছি তোমরা স্ব স্ব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে যাও। তোমাদের দাবিগুলো আমি লিখিত আকারে পেয়েছি। এর মধ্যে যেগুলো সম্ভব এখনই বাস্তবায়ন করছি। বাকিগুলো ধীরে ধীরে বাস্তবায়ন করা হবে।

এ সময় ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন যেকোনো মূল্যে বেপরোয়া চলাচল বন্ধ করে দিতে হবে। দুই-একদিনের মধ্যে আপনারা দৃশ্যমান পদক্ষেপ দেখতে পারবেন। মেট্রোরেলসহ আমাদের কিছু প্রকল্পের কাজ চলছে। যে কারণে যানজট কিছুটা বেড়ছে। এগুলো শেষ হলে শৃঙ্খলা অনেকটা ফিরে আসবে। তাছাড়া সড়ক পরিবহন মন্ত্রী অসুস্থ হয়ে চিকিৎসাধীন। তিনি ফিরে এলেই বাকি পদক্ষেপসমূহ নেয়া হবে। দুই মেয়রও এ বিষয়ে কাজ করছেন।

পথচারীদেরও নিয়ম মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, পথচারীরা আইন মানতে চায় না, এটা আমাদের একটা বড় সমস্যা। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দৌড়ে রাস্তা পারাপার বন্ধ করতে হবে। সময় দিন, আমরা কাজ করছি। এখনো আমাদের যেতে হবে অনেকদূর। সেজন্য সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

পিডিএসও/হেলাল