জার্মানির পথে প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯:০৪

অনলাইন ডেস্ক

নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিতে জার্মানি গেলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা ১০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে তিনি জার্মানির উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, দ্বিপক্ষীয় সফরের পাশাপাশি প্রতিরক্ষা সম্মেলনে যোগ দিতে শনিবার জার্মানি থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই) যাবেন প্রধানমন্ত্রী। জার্মানি ও ইউএইতে ছয় দিনের সফর শেষে আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি তিনি দেশে ফিরবেন।

একাদশ জাতীয় নির্বাচনে জয়ী হয়ে টানা তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর এটিই প্রধানমন্ত্রীর প্রথম বিদেশ সফর। জার্মানিতে নিরাপত্তা সম্মেলনের সাইডলাইনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেশটির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল, কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি, মিশরের প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাতাহ আল সিসিসহ বেশ কয়েকজন সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানের দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হবে।

ইউএইতে আমিরাতের প্রধানমন্ত্রী মুহাম্মদ বিন রাশেদ আল মাকতুমের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন শেখ হাসিনা। এ ছাড়া দুবাইয়ের ক্রাউন প্রিন্স ও আমিরাতের সামরিক বাহিনীর উপপ্রধান শেখ মুহাম্মদ বিন জায়েদ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

জার্মানির মিউনিখে নিরাপত্তা সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাব মোকাবিলা ও রোহিঙ্গা সঙ্কটের ওপর আলোকপাত করে বক্তব্য রাখবেন। এই সম্মেলনে অন্তত ৩৫টি দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধান, ৫০টি দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং ৩০টি দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী অংশ নেবেন।

এ সম্মেলনের সাইডলাইনে কাতারের আমির ও মিশরের প্রেসিডেন্ট ছাড়াও অস্ট্রিয়ার চ্যান্সেলর সেবাস্টিয়ান ক্রুজ, নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী এমা সোলবার্গ, ইইউর জ্যেষ্ঠ প্রতিনিধি ফেদরিকা মোঘেরিনি, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এবং রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সৌজন্য সাক্ষাতের কথা রয়েছে। নির্বাচনের পর ক্ষমতায় ফিরে এসে আন্তর্জাতিক সম্পৃক্ততা বাড়াতে এ সম্মেলনকে কাজে লাগানো হবে।

পিডিএসও/হেলাল