যা বললেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত

প্রকাশ : ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:৫০

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্র আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সহিংসতামুক্ত ও শান্তিপূর্ণ দেখতে চায় বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার।

তিনি বলেন, ‘সংখ্যালঘুসহ সকল বাংলাদেশি যেন ভোটের অধিকার প্রয়োগ করতে পারে সেজন্য প্রধান নির্বাচন কমিশনারের কাছে অনুরোধ জানিয়েছি। সুশীল সমাজ, পর্যবেক্ষকরা যেন সম্পূর্ণভাবে নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় সহায়তা করেন সে বিষয়েও আমরা আশাবাদী।’

বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

রবার্ট মিলার বলেন, ‘প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে বলেছি গত দুই সপ্তাহের নির্বাচনী সংহিসতা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র উদ্বিগ্ন। বড় বড় নেতাসহ সংখ্যালঘুরা সহিংসাতায় শিকার হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীও আক্রান্ত হয়েছে। তবে বিরোধী দলীয় নেতারা বেশি আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্ত অধিকাংশ বড় নেতারাই বিরোধী দলের। পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেয়ার জন্য সহিংসতা প্রতিরোধে নির্বাচন কমিশনের পরিকল্পনা কী জানতে এসেছিলাম। যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের মানুষের কাছে ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক দেখতে চায়।’

তিনি বলেন, ‘জাতিসংঘের (ইউএন) মহাসচিব একটা বিবৃতি দিয়েছেন। সেই দাবি আমাদেরও। তিনি বলেছেন- নির্বাচনের আগে ও পরে সব অংশীজনের কাছে তিনি সহিংসতামুক্ত, শান্তিপূর্ণ, অবাধ ও অংশগ্রহণমূলক পরিবেশ নিশ্চিত করতে বলেছেন।‘

মিলার বলেন, ‘ইউএন সেক্রেটারি জেনারেল অবাধ, অংশগ্রহণমূলক ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সম্পূর্ণভাবে সাপোর্ট করে।’

আগামী ৩০ ডিসেম্বর সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ২৯৯টি আসনে টানা ভোটগ্রহণ চলবে। এক প্রার্থীর মৃত্যুজনিত কারণে গাইবান্ধা-৩ আসনে ভোটগ্রহণ পিছিয়ে ২৭ জানুয়ারি নির্ধারণ করা হয়েছে।

পিডিএসও/রিহাব