শঙ্কা থেকে মাঠে আগাম বিজিবি মোতায়েন : ইসি

প্রকাশ : ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:৪৮

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজনৈতিক দলসহ সবার শঙ্কা দূর করতেই বর্ডার গার্ড বাংলাদেশকে (বিজিবি) আগাম মাঠে নামানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, রাজনৈতিক দলসহ অনেকে অভিযোগ করছেন যে, মাঠের পরিবেশ পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হচ্ছে। তাই শঙ্কা থেকে মাঠে আগাম বিজিবি নামানো হয়েছে। বিজিবি নামালে যদি মাঠের পরিবেশ ঠিক থাকে তাহলে নামাবো না কেন?

মঙ্গলবার নির্বাচন ভবনে নিজ কার্যালয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। প্রসঙ্গত: এদিন সারাদেশে বিজিবি সদস্যরা মাঠে নেমেছেন।

এদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীগুলোকে প্রায় ২৭২ কোটি টাকা আগাম বরাদ্দ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সম্প্রতি এ বরাদ্দ দিয়ে চিঠি জারি করা হয়েছে। এতে পুলিশকে ৬৩ কোটি ২২ লাখ ৮৪ হাজার, র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটেলিয়ানকে (র‌্যাব) ১০ কোটি ২০ লাখ ২৯ হাজার, বাংলাদেশ কোস্টগার্ডকে ১ কোটি ৫৬ লাখ, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশকে (বিজিবি) ৩৩ কোটি দুই লাখ ৪৩ হাজার এবং আনসার ও ভিডিপি ১৬৩ কোটি ৮১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা দেয়া হয়েছে। সবমিলিয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী জন্য ২৭১ কোটি ৮৩ লাখ ৩২ হাজার টাকা অর্থছাড় করা হয়েছে।

ইসির কর্মকর্তারা জানান, দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে বিজিবির সদস্যদের আগাম মাঠে নামানো হয়েছে। আগামী ২৬ ডিসেম্বর বিজিবি সদস্যদের মাঠে নামানোর প্রস্তাব করা হয়েছিল আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত সমন্বয় সভায়। পরে তা এগিয়ে ২২ ডিসেম্বর নামানোর পরিকল্পনা হয়। মঙ্গলবার বিজিবি দৃশ্যমান টহল শুরু করেছে। 

নির্বাচন কমিশনার মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে মাঠে বিজিবি নামানো হয়েছে। তবে কত আসনে নামানো হয়েছে তা আমি জানি না। পরিস্থিতি বিবেচনায় যে স্থানে আগে দরকার সেখানে আগে নামানো হবে আর যেখানে পরে নামালেও চলবে সেখানে পরে নামানো হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সবাই আমাদের কাছে অভিযোগ করছেন আমাদের কাছে পরিস্থিতি খারাপ হয়ে যাচ্ছে, হামলা হচ্ছে। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিলাম যে আগ থেকেই মাঠে বিজিবি নামাবো। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়ে বিজিবিকে জানালাম, তারা মাঠে নেমে গেছে।
তফসিল অনুসারে, আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

পিডিএসও/রিহাব