আজ আপিল গ্রহণের শেষ দিন

প্রার্থিতা ফিরে পেতে সংক্ষুব্ধরা ইসিতে

দ্বিতীয় দিনে ২৩৪ আপিল, শুনানি কাল

প্রকাশ : ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১০:৩৬ | আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১০:৫৬

নিজস্ব প্রতিবেদক

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র বাতিলের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় দিনের মতো নির্বাচন কমিশনে (ইসি) বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা আপিল করেছেন। গতকাল মঙ্গলবার প্রার্থিতা ফিরে পেতে ২৩৪ জন আপিল করেছেন। আজ বুধবার আপিল গ্রহণের শেষ দিন। এদিকে মনোনয়নপত্র বৈধ-অবৈধের পক্ষে-বিপক্ষে যারা আপিল করেছেন, তাদের আপিলের শুনানি শুরু হবে আগামীকাল থেকে। এ ক্ষেত্রে আদালতের মতোই শুনানি করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

নির্বাচন কমিশন একটি আধাবিচারিক সংস্থা। সংসদ নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনই আপিল কর্তৃপক্ষের ভূমিকা পালন করে। তবে সংক্ষুব্ধরা ইসির সিদ্ধান্তে সন্তুষ্ট না হলে আদালতেও যেতে পারবেন। আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের ১১-তলায় শুনানি হবে। গতকাল আপিলকারীদের মধ্যে রয়েছেন নাটোর-২ আসনের বিএনপি প্রার্থী রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, নেত্রকোনা-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এম এ করিম আব্বাসী, জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য সোহেল রানা, মেজর (অব.) মনজুর কাদের প্রমুখ। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত খালেদা জিয়ার পক্ষে কেউ আপিলের আবেদন করেননি।

ইসি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, শুনানিতে আপিলকারীরা তাদের আইনজীবী নিয়ে আসতে পারবেন। সেখানে আদালতের বেঞ্চের মতো করেই তারা মুভ করবেন। ২৮ নভেম্বর মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিনে ৩০৬৫টি মনোনয়নপত্র জমা পড়েছিল। এর মধ্যে দলীয় মনোনয়নপত্র জমা পড়ে মোট ২ হাজার ৫৬৭টি ও স্বতন্ত্র ৪৯৮টি।

২ ডিসেম্বর ছিল মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের শেষ দিন। ওই দিন ২ হাজার ২৭৯টি মনোনয়নপত্র বৈধ ও ৭৮৬টি অবৈধ বলে ঘোষণা করেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা। এগুলোর মধ্যে বিএনপির ১৪১টি, আওয়ামী লীগের ৩টি এবং জাতীয় পার্টির ৩৮টি মনোনয়নপত্র বাতিল হয়। স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে ৩৮৪টি।

বাতিল হওয়া প্রার্থীরাসহ সংক্ষুব্ধ যেকোনো ব্যক্তি আজ বুধবার পর্যন্ত আপিল করতে পারবেন। কাল ও পরশু আপিল শুনানি করে নিষ্পত্তি করবে কমিশন।

এদিকে মঙ্গলবার প্রার্থীদের আপিল গ্রহণ করা আট বিভাগের ডেস্কগুলো পরিদর্শন করেন ইসি কমিশনার মাহবুব তালুকদার। পরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আপিলকারীদের প্রতি পক্ষপাতিত্বমূলক আচরণ করা হবে না। তবে আমরা যা কিছু করব, তা আইনানুগভাবেই আমাদের করতে হবে। কারো প্রতি পক্ষপাতিত্ব আমরা অবশ্যই দেখাব না। প্রতিটি কেসেরই (আপিল) মেরিট আমরা দেখব। আমি যেটা মনে করি, নির্বাচন কমিশন সব ব্যাপারেই একটা নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করবে।

গতকাল আট বিভাগের ২৩৪ জন আপিল করেছেন, এর মধ্যে খুলনা বিভাগে ১৮, ময়মনসিংহ বিভাগে ১৬, সিলেট বিভাগে ১৫, বরিশাল বিভাগে ১২, ঢাকা বিভাগে ৬৮, চট্টগ্রাম বিভাগে ৫৬, রাজশাহী বিভাগে ২২, রংপুর বিভাগে ২৭ জন। এ নিয়ে গত দুই দিনে আপিল করেছেন ৩১৮ জন।

এর আগে, গত সোমবার আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্রের বৈধতা পেতে ইসিতে সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এস এম কিবরিয়ার ছেলে রেজা কিবরিয়া, সাবেক মন্ত্রী মীর নাছির, সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মওলা রনি, হিরো আলমসহ ৮৪ প্রার্থী আপিল করেছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ২ ডিসেম্বর ছিল মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিন। সারা দেশে দাখিল করা ৩ হাজার ৬৫টি মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের পর ২ হাজার ২৭৯টি মনোনয়নপত্র বৈধ এবং ৭৮৬টি মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তারা। বাতিল হওয়া প্রার্থীরা তাদের প্রার্থিতা ফিরে পেতে ৩ ডিসেম্বর থেকে আপিল শুরু হয়েছে, চলবে ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এরপর ৬ ডিসেম্বর থেকে প্রার্থীদের আপিল গ্রহণের ওপর শুনানি চলবে। পরদিন ৯ ডিসেম্বর মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন এবং ১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে। আগামী ৩০ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণ হবে।

পিডিএসও/হেলাল