‘নির্বাচন পেছানোর বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে’

প্রকাশ : ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ২১:৪৪

অনলাইন ডেস্ক

নির্বাচন জানুয়ারিতে হলে অনেক সমস্যা হবে। তবু নির্বাচন পেছানোর বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে। কমিশন সভায় নিবার্চন পেছানোর বিষয়টি আলোচনা হবে, সেখানে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। বললেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ।

বুধবার সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশন ভবনে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দল ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

নির্বাচন কমিশন সচিব বলেন, নয়াপল্টনের বিষয় খতিয়ে দেখবে কমিশন।
উল্লেখ্য, ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্টের প্রতিনিধি দল দেখা করেন নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে।
এসময় তারা আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সময় ফের পেছানোসহ কিছু দাবি নির্বাচন কমিশনের কাছে জানান। কমিশন তাদের এ দাবি বিবেচনার  আশ্বাস দিয়েছে বলে জানিয়েছিলেন ড. কামাল।

পরে এদিন সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচ টি ইমামের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল দেখা করেন নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে।
এসময় তারা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ যেন আর পেছানো না হয় সেই দাবি জানান।
এইচ টি ইমাম বলেন, বিদেশিদের সুযোগ সুবিধা দেখে তারিখ পেছানো যৌক্তিক হবে না।

বৈঠক শেষে এইচ টি ইমাম সাংবাদিকের বলেন, নির্বাচনে বিদেশি পর্যবেক্ষক আসা নিয়ে ভোটের তারিখ পেছানোর দাবি যৌক্তিক নয়। বিদেশিদের সুযোগ সুবিধা দেখে তারিখ পেছানো ঠিক হবে না।

তিনি বলেন, ডিসেম্বরের পর নির্বাচন সম্ভব নয়। কারণ জানুয়ারিতে স্কুলে শিক্ষার্থীদের নতুন বই দেয়া হবে। এ মাসে বিশ্ব ইজতেমা রয়েছে।

পিডিএসও/রিহাব