সংসদে মোঃ তাজুল ইসলাম এমপি

‘বঙ্গবন্ধু আমাদের জাতীয় চেতনার উৎস’

প্রকাশ : ১২ এপ্রিল ২০১৮, ২১:২৬ | আপডেট : ১৩ এপ্রিল ২০১৮, ০৯:৫১

সংসদ প্রতিবেদক

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. তাজুল ইসলাম এমপি বলেছেন, ‘হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের জাতীয় চেতনার উৎস। বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন এ দেশের স্বাধীনতা ও অর্থনৈতিক মুক্তি। তাকে হত্যার মধ্য দিয়ে জাতির স্বপ্ন ও উন্নয়নকে হত্যা করা হয়েছিল। কিন্তু তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিন-রাত পরিশ্রম করে দেশকে স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীলে এগিয়ে এনেছেন।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় জাতীয় সংসদে স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে উন্নয়নশীলে উত্তরণের যোগ্যতা অর্জন নিয়ে এক অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন তিনি। ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিতে এই অধিবেশন শুরু হয়। 

মো. তাজুল ইসলাম এমপি জানান, বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন ভিক্ষুকমুক্ত জাতি গড়তে। তার সুযোগ্য কন্যা সেদিকেই দেশকে, জাতিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তিনি স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ করেছেন। 

তিনি স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীলে উত্তরণের শর্ত উল্লেখ করে বলেন, জাতিসংঘ ঘোষিত মাথাপিছু আয়, মানবসম্পদ এবং অর্থনৈতিক ঝুঁকির তিনটি মানদণ্ডে তাদের ঘোষিত মান অর্জন করতে হয়। মাথাপিছু আয়ের ক্ষেত্রে এক হাজার ২৩০ ডলার, বর্তমানে বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় এক হাজার ৪০০ ডলারের বেশি। মানবসম্পদে ৬৬ পয়েন্ট প্রয়োজন, এই ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ৭২ পয়েন্টেরও বেশি অবস্থানে আছে। অর্থনৈতিক ঝুঁকির ক্ষেত্রে জাতিসংঘের মান ৩২ বা এর কম, বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থা ২৪-এর নিচে। উল্লিখিত তিনটি মানদণ্ডে জাতিসংঘের প্রত্যাশিত মানের চেয়ে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে থাকার বিষয়টি জাতিসংঘের এ-সংক্রান্ত কমিটিও স্বীকার করেছে। তাই স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে স্বীকৃতি এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। আর এটা সম্ভব হয়েছে জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দ্বারা। তিনি তা প্রমাণ করে দেখিয়েছেন।

এমপি তাজুল ইসলাম বলেন, ‘স্বাধীনতাবিরোধীরা বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতার ইতিহাস বিকৃতি করতে অপচেষ্টা চালিয়েছে। কিন্তু পারেনি। ষড়যন্ত্রকারীদের জাল ছিন্ন করে ইতিহাস তার আপন গতিতে অন্ধকার থেকে আলোর পথে এগিয়ে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধু বাঙালিকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন, পরাধীনতা থেকে মুক্তি দিয়েছেন। বিশ্বের বুকে মাথা উঁচঁ করে দাঁড়াতে শিখিয়েছেন। আমরা ভিক্ষকের জাতি হিসেবে নয়, সম্মান নিয়ে বাঁচতে চাই। সবাইকে নিয়ে চলতে চাই।’   

বিএনপির দেশের প্রতি কোনো মমত্ববোধ নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘তাদের দিয়ে এ দেশের উন্নয়ন হবে না। কিন্তু আমরা চাই সবাইকে নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে। বিএনপি কোনো সময়ই দেশের জন্য কাজ করেনি, তারা শুধু নিজেদের পকেট ভারী করতে কাজ করেছে।’

তিনি অভিযোগ করেন, বিএনপি নির্বাচনে না এসে নির্বিচারে মানুষ হত্যায় লিপ্ত থাকে। তারা যদি দেশের জন্য কাজ করত, তাহলে তারা দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকা সত্ত্বেও দেশের উন্নয়ন করেনি কেন?

পিডিএসও/রিহাব