কাঠমান্ডু ট্র্যাজেডি : তিন মরদেহ আজ আসছে

প্রকাশ : ২২ মার্চ ২০১৮, ১১:১৫

অনলাইন ডেস্ক

নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত নজরুল ইসলাম, আলিফুজ্জামান ও পিয়াস রায়ের মরদেহ আজ বৃহস্পতিবার দেশে আসছে। বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে আজ বিকেল ৩টায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাদের মরদেহ এসে পৌঁছাবে বলে জানিয়েছেন ইউএস-বাংলার গণসংযোগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক কামরুল ইসলাম। বুধবার সন্ধ্যায় তিনি এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এর আগে নেপালে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় নিহত যে তিন বাংলাদেশির মরদেহ কাঠমান্ডুতে ছিল, তাদের পরিচয় শনাক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নেপালে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মাশফি বিনতে শামস।

মাশফি বিনতে শামস বলেন, ‘নজরুল ইসলাম, পিয়াস রায় ও আলিফুজ্জামানের মরদেহ শনাক্তের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এখন আর তাদের লাশ দেশে ফেরত পাঠাতে কোনো বাধা নেই। এ ব্যাপারে ইউএস-বাংলার সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। তারা মরদেহগুলো দেশে নেওয়ার বিষয়ে কাজ করছে।’

এর আগে কাঠমান্ডুতে বাংলাদেশ দূতাবাসের ফার্স্ট সেক্রেটারি মোহাম্মদ আল আলামুল ইমাম বলেন, এই তিনজনের মরদেহ এখন দেশে ফেরত পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। তবে সুনির্দিষ্ট কোনো দিনক্ষণ এখনো ঠিক হয়নি। আমরা যত দ্রুত সম্ভব পাঠানোর চেষ্টা করছি।

ঢাকা থেকে কাঠমান্ডুগামী ইউএস-বাংলার একটি ফ্লাইট গত ১২ মার্চ কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের সময় বিধ্বস্ত হয়। ওই বিমানের ৭১ আরোহীর মধ্যে ৪৯ জন এ দুর্ঘটনায় নিহত হন। তাদের মধ্যে পাইলট, ক্রুসহ ২৬ জন বাংলাদেশি।

তাদের মধ্যে ২৩ জনের লাশ গত সোমবার দেশে এনে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। কিন্তু বিমান দুর্ঘটনায় পোড়া লাশ শনাক্ত করতে দেরি হওয়ায় তিনজনের লাশ দেশে আনা বিলম্বিত হয়। দগ্ধ হয়ে নিহতদের পরিচয় শনাক্ত করা কঠিন হয়ে পড়ায় তাদের স্বজনদের ডিএনএ নমুনা মিলিয়ে দেখা হতে পারে বলে চিকিৎসকরা এর আগে জানিয়েছিলেন।

তবে শেষ পর্যন্ত তা করতে হয়নি বলে আলামুল ইমাম জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ডিএনএ পরীক্ষা করে মরদেহ শনাক্ত করতে হলে আরো কয়েক দিন সময় লাগত। যেহেতু তাদের শনাক্ত করা গেছে, তাই ডিএনএ পরীক্ষার প্রয়োজন হয়নি।

পিডিএসও/তাজ