প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চাইলেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব

প্রকাশ : ০৯ মার্চ ২০১৮, ১৬:৩৫ | আপডেট : ০৯ মার্চ ২০১৮, ১৬:৪৪

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতন্ত্রের দেশ ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের নয়া মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফোন করে তার সহযোগিতা চেয়েছেন। ফোনালাপে ত্রিপুরার উন্নয়নে বাংলাদেশের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি। এছাড়া দুদেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে কিছুক্ষণ আলাপ করেন তারা। আজ শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানান, শুক্রবার দুপুরে শপথ নেওয়ার আগে আজ সকালে ঢাকায় ফোন করেন বিপ্লব কুমার দেব। ত্রিপুরার উন্নয়নে বাংলাদেশের পক্ষ থেকেব সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন শেখ হাসিনাও। পাশাপাশি ১৯৭১ সালে আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ত্রিপুরার জনগণের সহযোগিতার কথা স্মরণ করেন।
এদিকে আজ দুপুরে নতুন মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথও নিয়েছেন বিপ্লব কুমার দেব। ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলার আসাম রাইফেলস ময়দানে এই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এছাড়া বিজেপি থেকে নির্বাচিত বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরাও উপস্থিত ছিলেন।
গত ১৮ ফেব্রুয়ারি ত্রিপুরা রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ত্রিপুরার বনমালিপুর আসন থেকে লড়েন বিপ্লব। সেই নির্বাচনে বিপ্লব কুমার দেবের নেতৃত্বে বিজেপি ৬০টি আসনের মধ্যে ৪৩টি আসন পায়। বিপ্লব কুমার দেব নিজেও একটি আসনে বিশাল ব্যবধানে জয়লাভ করেন। গত শনিবার ত্রিপুরাসহ ৩ রাজ্যের বিধানসভার নির্বাচনের ফল ঘোষণা হয়। বিপ্লব দেব ত্রিপুরা রাজ্য বিজেপির দায়িত্ব পান ২০১৬ সালে ৭ জানুয়ারি।
প্রসঙ্গত চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার সন্তান বিপ্লব দেব। উপজেলার সহদেবপুর পূর্ব ইউনিয়নের মেঘদাইর গ্রামের হিরুধন দেব ও মিনা রানি দেবের একমাত্র ছেলে বিপ্লব কুমার দেব। মুক্তিযুদ্ধের সময় তার মা-বাবা ত্রিপুরা চলে যান। এরপর তারা সেখানেই স্থায়ী বাসিন্দা হয়ে যান। বিপ্লব দেবের কাকা প্রাণধন দেব কচুয়া উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ বর্তমান সভাপতি।

পিডিএসও/মুস্তাফিজ