আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্রপতি নির্বাচন

প্রকাশ : ২২ জানুয়ারি ২০১৮, ২১:৫৪ | আপডেট : ২২ জানুয়ারি ২০১৮, ২২:০১

অনলাইন ডেস্ক

বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের মেয়াদ শেষে পরবর্তী ৫ বছরের জন্য বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি সোমবার। সংসদ সদস্যদের ভোটে সংসদের চলতি ১৯তম অধিবেশনের মধ্যেই রাষ্ট্রপতি পদের নির্বাচন হবে। আজ সোমবার আইনমন্ত্রী আনিসুল হক গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানিয়েছেন। জানা যায়, আবদুল হামিদের মেয়াদ শেষ হবে চলতি বছরের ২৩ এপ্রিল। ইতিমধ্যে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। স্পিকারের সঙ্গে সাক্ষাতের পর আনুষ্ঠানিকভাবে কমিশন তফসিল ঘোষণা করবে। আর ১৯ ফেব্রুয়ারি জাতীয় সংসদের সদস্যরা রাষ্ট্রপতির নির্বাচনে প্রকাশ্য ভোট দেবেন। প্রকাশ্য ভোট গণনাও হবে। ওই দিন সংসদ সদস্যদের ভোটে দেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হবেন। রাষ্ট্রপতি পদে একক প্রার্থী হলে ভোটের প্রয়োজন হবে না। একাধিক প্রার্থী থাকলে ভোট হবে। এই ক্ষেত্রে প্রার্থীরা সমান ভোট পেলে লটারি হবে। নির্বাচন বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত।
আইন অনুযায়ী আগামী ২৪ জানুয়ারি বুধবার থেকেই শুরু হবে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ক্ষণগণনা। ওই দিন থেকে পরবর্তী ৩০ দিনের মধ্যেই অর্থাৎ ২২ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে হবে। ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল দায়িত্ব গ্রহণ করেন বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তার ৫ বছরের মেয়াদ ২৩ এপ্রিল শেষ হবে। আর সংবিধান অনুযায়ী মেয়াদ অবসানে পূর্ববর্তী ৯০ থেকে ৬০ দিনের মধ্যে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আর এই ব্যাপারে সংবিধানের ১২৩ (১) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রপতি পদের মেয়াদ অবসানের কারণে উক্ত পদ শূন্য হলে মেয়াদ-সমাপ্তির তারিখের পূর্ববর্তী ৯০ হতে ৬০ দিনের মধ্যে শূন্য পদ পূরণের জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হইবে।
এদিকে বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদই আবারও রাষ্ট্রপতি হচ্ছেন কি না জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমদ এই বিষয়ে কিছু রাজি হননি।

পিডিএসও/মুস্তাফিজ