হালুম ক্রাফটের ওয়াশেবল পিপিই

প্রকাশ : ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬:৫৯ | আপডেট : ৩০ মার্চ ২০২০, ২২:৩৬

নিজস্ব প্রতিবেদক

মরণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও তৎপরতা শুরু হয়ে গেছে।   সরাসরি ঘোষণা না হলেও অনেকটা অঘোষিত লকডাউন সারা দেশজুড়ে। মানুষ এখন অনেকটাই সচেতন। সংক্রমণের আশঙ্কায় গৃহবন্দি। তারপরও নানা প্রয়োজনে মানুষকে বের হতে হচ্ছে। চিকিৎসক, সাংবাদিক থেকে শুরু করে প্রশাসনের নানান ব্যক্তিকে ঘর থেকে বের হতে হচ্ছে সামাজিক কিংবা দেশের স্বার্থে। এছাড়া বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ তো আছেই। তখন প্রশ্ন থেকে যায় ব্যক্তিগত নিরাপত্তা নিয়ে। আর এই নিরাপত্তার কথা ভেবেই দেশের অন্যতম পোশাক প্রস্তুত ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ‘হালুম ক্রাফট’ নিয়ে এলো পার্সোনাল প্রটেক্টেড ইকুইপমেন্ট কিংবা পিপিই। ব্যবসার উদ্দেশে নয় বরং করোনা সংক্রমণ শঙ্কায় থাকা মানুষের নিরাপত্তার কথা ভেবেই এমন উদ্যোগ। জানিয়েছেন হালুম ক্রাফট এর কর্ণধার সুরাইয়া নাভা তরু

তিনি বলেন, সারা দেশের মানুষের হাহাকার টের পাচ্ছি। এমন ক্রান্তিলগ্নে মানুষের উপকারে আসে তেমন কিছু করার কথা ভাবছিলাম। দেশে সবকিছু বন্ধ হয়ে গেছে। আমার প্রতিষ্ঠানের কারিগররাও বাড়ি ফিরতে পারেনি। অন্যসব পোডাক্ট প্রস্তুত থেকেও আমরা বিরত ছিলাম। তা ভেবে সময়োপযোগী কি প্রস্তুত করা যায়- সেই ভাবনা থেকে পিপিই প্রস্তুতের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

পিপিই নিয়ে দেশে রব উঠেছে। অনেকে পার্সোনাল প্রটেক্টের জন্য এটার প্রতি গুরুত্ব দিচ্ছেন বেশি।

সুরাইয়া নাভা তরু বলেন, অনেক পিপিই ওয়ান টাইম ইউজ করা যায়। আমাদের তৈরি পিপিই ওয়াশেবল। এটা ওয়াশ করে সারাজীবন ব্যবহার করতে পারবে যে কেউ। তাই আমরা এটা তৈরি করতে প্যারাসুট ফ্রেবিকস ইউজ করেছি। আমাদের পিপিই ডেটল কিংবা ব্লিচিং পাউডার দিয়ে ওয়াশ করা যাবে।

হালুম ক্রাফট এই পিপিই তৈরি করার পূর্বে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)  এর ইন্সট্রাকশন মেনে করেছেন বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, এরইমধ্যে বেশ কয়েকজন চিকিৎসক আমাদের পিপিই ব্যবহার করে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। তাছাড়া কুমিল্লার ব্রাক্ষ্রণপাড়ার ইউএনও উনার অফিসের জন্যও আমাদের পিপিই সংগ্রহ করেছেন।

এছাড়া মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভসও তৈরি করছেন বলে জানালেন হালুম ক্রাফটের কর্ণধার। যারা পিপিই খুঁজছেন তারা অনায়াসে যোগাযোগ করতে পারেন। https://www.facebook.com/halumcraft/ ভিজিট করে পণ্যের অর্ডার করতে পারবেন। মূল্য ১২০০ টাকা। তাছাড়া 01797-341309 নাম্বারেও যোগাযোগ করতে পারবেন। 

তিনি আরও বলেন, এখন ডেলিভারি বন্ধ। কিন্তু যারা পিপিই সংগ্রহের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন তাদের জন্য ব্যক্তিগত উদ্যোগে পিপিই সরবরাহের ব্যবস্থা করেছি।