ঐতিহ্যবাহী শীতের পিঠা

প্রকাশ : ১৭ জানুয়ারি ২০২০, ১০:১৩

তানজিন তিপিয়া
ভাপা ও সেমাই পিঠা (উপরে) মাংস ও রস বরা পিঠা (নিচে)

আবহাওয়া খবরের মতে, জানুয়ারি মাসজুড়ে বয়ে যাবে দু-তিনটে শৈত্যপ্রবাহ। আর শীতের তীব্রতা যত বেশি, পিঠা খাবার স্বাদটাও বেড়ে যায় দ্বিগুণ। তাই আপনজনদের নিয়ে সময়টি উপভোগ করুন। আজও রইল বাংলার ঐতিহ্যবাহী শীতের পিঠার আরও একটি আয়োজন—

ভাপা পিঠা

উপকরণ : নতুন সিদ্ধ চালের গুঁড়া ৪ কাপ, গুড় ভাঙা ১টি বড়, নারকোল কোড়ানো ১টির অর্ধেক, পানি যতটুকুু লাগে, লবণ ১ চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : চালের গুঁড়া পানি দিয়ে ভেজাতে থাকুন। হাতের মুঠোর চাপে দলা হয়ে গেলে বুঝবেন মিশ্রণটি তৈরি। ১ ঘণ্টা পর মিশ্রণটি চেলে নিন। পিঠার ডাইজে গুঁড়া, গুঁড়া, নারিকেল দিয়ে হালকা চেপে পাতলা ভেজা কাপড় মুড়িয়ে ভাপার ডেকচিতে বসিয়ে ডাইজটি তুলে নিন, ঢেকে ৩-৪ মিনিট ভাপান। এভাবেই একে একে তৈরি করে নিন সবার প্রিয় ভাপা পিঠা।

সেমাই পিঠা

উপকরণ : পানি ১ কাপ ও চালের গুঁড়া ১ কাপ।

প্রস্তুত প্রণালি : ফুটন্ত পানিতে চালের গুঁড়া মিশিয়ে ২ মি. দমে রাখুন। কাই হাতে মলে ৩ ভাগ করে, লম্বা মণ্ড বানিয়ে ১০ মি. ভেপে নিন। ফ্রিজে ৫ ঘণ্টা ঠান্ডা করে গ্রেটার বড় কাঁটা দিয়ে কুচে নিন। দুধে ২ মিনিট সিদ্ধ করলেই তৈরি সেমাই পিঠা।

দুধ : পানি ওই একই কাপের ৩ কাপ, এলাচ ২টি, চিনি ও গুঁড়া দুধ ৯ টেবিল চামচ করে, লবণ ৩ চিমটি।

মাংস পিঠা

উপকরণ : আটা ১০ টেবিল চামচ, পানি প্রায় ২ কাপ, লবণ ৩ চিমটি, ডিম ২টি।

প্রস্তুত প্রণালি : সব উপকরণ একত্রে মিশিয়ে পাতলা মিশ্রণ তৈরি করুন। চুলার আঁচ মৃদু থেকে একটু বেশি রেখে, গরম কড়াইতে কাপড় দিয়ে তেল মাখিয়ে বড় ২ চামচ মিশ্রণ দিয়ে, গোল করে ছড়িয়ে দিন, রুটির উপরিভাগ শুকিয়ে এলে একপাশ পুর দিয়ে, মুড়ে ফেলুন। এবার তৈরি মাংসালি ঝাল পিঠা।

পুর : ৮ টেবিল চামচ গরম তেলে সিদ্ধ মুরগির মাংস হাতে চিরে নেওয়া ২ পিস, সিদ্ধ আলু হাতে চটকানো বড় ২টি, জিরাগুঁড়া আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ২টি, ধনেপাতা কুচি ১ মুঠো, লবণ আধা চা চামচ। চুলোয় ৫ মিনিট একত্রে মিশিয়ে নিলেই পুর তৈরি।

রস বরা পিঠা

উপকরণ : ১টি বড় ডালের চামচ, ৪ চামচ ময়দা, ৭ চামচ পানি, ২ চামচ চিনি, ডিম ১টি, লবণ ২ চিমটি।

দুধ রস : ১ লিটার পানিতে ১০ টেবিল চামচ গুঁড়া দুধ মিশিয়ে ২টি এলাচ, টুকরো দারুচিনি, সঙ্গে ৮ টেবিল চামচ চিনি দিয়ে সিদ্ধ হলেই দুধ তৈরি।

প্রস্তুত প্রণালি : সব উপকরণ একত্রে মাখিয়ে পাতলা মিশ্রণ তৈরি করে চুলোর আঁচ মাঝারি রেখে ডুবু তেলে সোনালি করে ভেজে নিন, এবার টুকরো করে গরম দুধের রসে ডুবিয়ে দিলেই রস বরাপিঠা তৈরি।

পিডিএসও/হেলাল