পরীক্ষায় ভালো ফল করতে নাশতার ভূমিকা

প্রকাশ : ২৫ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:১৪ | আপডেট : ২৫ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:৩২

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

সকালের নাশতা রক্তে শরকরার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে মস্তিষ্ক সঠিকভাবে কাজ করতে এবং সারা দিন সতেজ ও সজীব থাকতে সকালের নাশতার বিকল্প নেই।

সকালের নাশতা করলে শরীরে কোনো ক্লান্তি স্পর্শ করতে পারে না। এ ছাড়া গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব শিশু নিয়মিত সকালের নাশতা করে, তারা পরীক্ষায় ভালো ফল করে।

শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফলের সঙ্গে সকালের নাশতার কোনো যোগসূত্র আছে কি না— তা নিয়ে গবেষণা করেন যুক্তরাজ্যের লিডস বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক। স্কুল ও কলেজের ২৯৪ শিক্ষার্থীকে নিয়ে করা গবেষণায় দেখা যায়, ২৯ শতাংশ শিক্ষার্থী সকালের নাশতা না খেয়েই ক্লাস করে, ১৮ শতাংশ মাঝেমধ্যে নাশতা করে এবং ৫৩ শতাংশ শিক্ষার্থী নিয়মিত নাশতা করে ক্লাস করে।

গবেষক ক্যাটি অ্যাডলফাস গবেষণা শেষে জানান, যেসব শিক্ষার্থী নাশতা খেয়ে ক্লাসে আসত তারা অন্যদের চেয়ে পরীক্ষায় ১০ দশমিক ২৫ পয়েন্ট বেশি নম্বর পেয়েছে। সকালের নাশতা ছাড়াও সামাজিক-অর্থনৈতিক, লিঙ্গ, বয়স এবং বিএমআইয়ের ওপর শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফলাফল কিছুটা নির্ভর করে। সন্তানের পরীক্ষায় ভালো ফলাফল চাইলে অবশ্যই সকালের নাশতা খাওয়াটা নিশ্চিত করতে হবে।

সকালের নাশতায় সবজি খিচুড়ি, ডিম, আটার রুটি, দই, সালাদ, ফলসহ প্রোটিন এবং আঁশযুক্ত খাবার বেশি রাখতে পারেন। তবে খাবার তালিকায় লবণ এবং চর্বিযুক্ত খাবার যতটা সম্ভব কম রাখা উচিত। সূত্র : মিডডে ডটকম

পিডিএসও/তাজ