সাহরির আরো একটি পর্ব

প্রকাশ : ১১ মে ২০১৯, ১৯:৪৫ | আপডেট : ১১ মে ২০১৯, ২০:০০

রন্ধনশিল্পী তানজিন তিপিয়া

অনেকে মনে করেন সাহরিতে পেট ভরে খেয়ে নিলে সারা দিন শক্তি জোগাবে। এ ধারণা একদম ভুল। রাতে হজমক্রিয়া ধীরগতিতে চলে। ফলে দেখা দিতে পারে বদহজমের নানা উপসর্গ। তাই খেতে হবে পরিমিত, হালকা, কম তেল ও চর্বিযুক্ত কিছু, সেসঙ্গে প্রচুর পরিমাণে পানি। সাহরির আরো একটি পর্ব নিয়ে আজকের আয়োজন। 

কবুতরের ঝোল

উপকরণ : কবুতর গোটা অথবা কাটা ২টি, বড় পেঁয়াজ ১টি, রসুন কোয়া ৪টি ও আদা ১ টুকরা গ্রেট করা, কাঁচামরিচ গোটা ৫টি, ধনেপাতা কুচি ২ মুঠো, তেল ৭ টেবিল চামচ, লাল মরিচ গুঁড়া ২ চা চামচ, হলুদ ১/২ চা চামচ, পানি ১ লিটার, লবণ ১/২ চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : তেলে সব উপকরণ একত্রে কষিয়ে পানি দিয়ে কবুতর দিন। ঝোল শুকিয়ে অর্ধেক হয়ে এলেই স্বাস্থ্যকর কবুতরের মসলাদার ঝোল তৈরি।

বি. দ্র. : কবুতর উচ্চ আমিষযুক্ত একটি আদর্শ খাবার। দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেহের যকৃৎ ও মূত্রাশয় সুস্থ রাখে। চর্বির মাত্রা অন্যসব মাংসের তুলনার খুব কম, হজমও হয় তাড়াতাড়ি।

পান্তা ভাত

উপকরণ : আতপ/সেদ্ধ/পোলাও চাল আধা কেজি, পানি মধ্যমা আঙুলে প্রথম দাগের একটু বেশি, এলাচ, তেজপাতা, দারচিনি, লবঙ্গ ১টি করে।

প্রস্তুত প্রণালি : সব উপকরণ একত্রে দিয়ে পানি ফুটে এলে ২০-৩০ মিনিট মৃদু আঁচে দমে দিন। রান্না করা ভাতে আধা লিটার পানি দিয়ে নাড়ুন পান্তা ভাত তৈরি।

মচমচে লইট্টা

উপকরণ : লইট্টা মাছ গোটা ৬ পিস, লেবুর রস অর্ধেকটা, লাল মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া, ধনে গুঁড়া, জিরা গুঁড়া ও লবণ সবকটি আধা চা চামচ করে, বেসন ৪ মুঠো।

প্রস্তুত প্রণালি : সব উপকরণ একত্রে মাখিয়ে ডুবু তেলে বাদামি করে ভুনে নিলেই মচমচে লইট্টা মাছ তৈরি।

নতুন আলুর তরকারি

উপকরণ : নতুন আলু সিদ্ধ ২৫০ গ্রাম অর্থাৎ ১ বাটি, মুরগির বুকের মাংস ছোট করে কাটা ২ পিস, গ্রেটকরা বড় পেঁয়াজ ১টি, রসুন কোয়া ২টি ও আদা ১ টুকরা, টমেটো কুচি ২টি, কাঁচামরিচ গোটা ৫টি, ধনেপাতা কুচি ২ মুঠো, সয়াবিন তেল ৭ টেবিল চামচ, লাল মরিচ গুঁড়া ২ চা চামচ, হলুদ ১ চা চামচ, এলাচ, তেজপাতা, দারচিনি, লবঙ্গ ১টি করে, পানি আধা লিটার, লবণ ১ চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : তেলে পেঁয়াজ, রসুন ভেজে সব উপকরণ একত্রে কষিয়ে পানি দিয়ে মাংস-আলু বসিয়ে দিন। ঝোল শুকিয়ে এলেই আলুর তরকারি একদম তৈরি।

পিডিএসও/রি.মা