প্রতিদিন পান করুন ১ গ্লাস দুধ

প্রকাশ : ০৪ জুলাই ২০১৮, ২০:৪০

অনলাইন ডেস্ক

দুধপানের স্বাস্থ্য উপকারিতার শেষ নেই। যে কোন বয়সের মানুষের উচিত প্রতিদিন অন্তত ১ গ্লাস দুধ পান করা। বিভিন্ন পুষ্টিকর উপাদান ও ক্যালসিয়ামে ভরপুর দুধ আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ভালো। বাড়ন্ত বয়সের বাচ্চাদের জন্য প্রতিদিন ১ গ্লাস দুধের উপকারিতা অনেক বেশি। তাহলে জেনে নিই প্রতিদিন দুধ পানে আমরা আমাদের দেহে কী কী স্বাস্থ্য উপকারিতা পেয়ে থাকি।

ক্ষুধা নিবারণ : বিশ্বাস করুন বা নাই করুন, আপনি কি জানেন দুধ ক্ষুধা নিবারণ করতে সাহায্য করে?   গবেষণায় এসেছে যে ৩৪% মানুষ দুপুরের খাবার হিসেবে কম ক্যালরির দুধ পান করে থাকেন। দুধ পানেই তাদের ক্ষুধা মিটে যায়। তাছাড়া দুধে উচ্চ মাত্রায় প্রোটিন রয়েছে বলে যদি সকালে নাস্তার সাথে আপনি এক গ্লাস দুধ পান করেন তাহলে সারাদিন মোটামুটি আপনার ক্ষুধা কমই লাগবে।

পেশী মজবুত করে : বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে আমাদের দেহের হাড় ক্ষয় হতে থাকে। শরীরের বিভিন্ন অংশে ব্যথা শুরু হয়। কিন্তু বাড়ন্ত বয়স থেকে যদি আপনি প্রতিদিন নিয়ম করে দুধ পান করেন তাহলে ধীরে ধীরে আপনার দেহের মাংসপেশী মজবুত হবে, সাথে সাথে মজবুত হবে হাড়ও। কারণ দুধে আছে প্রচুর পরিমানে প্রোটিন ও ভিটামিন ডি যা আমাদের দেহে মজবুত পেশী ও হাড় গঠনে সহায়তা করে ও দেহের দুর্বলতা দূর করে।

মসৃণ ও উজ্জ্বল চুল : আপনার চুল মসৃণ ও উজ্জ্বল রাখুন দুধ পানের মাধ্যমে। দুধের পুষ্টি আমাদের চুলকে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করে তুলতে সাহায্য করে। দুধের প্রোটিন ও লিপিড চুলকে মজবুত করে তোলে এবং দুধের ক্যালসিয়াম আমাদের চুল বৃদ্ধিতে সহায়তা করে ও চুল ঝরে পড়া কমিয়ে দেয়। দুধে আছে আরও পুষ্টিকর উপাদান যেমন, ভিটামিন-এ, বি-৬, বায়োটিন ও পটাশিয়াম এই সবগুলো উপাদানই আমাদের চুলকে মসৃণ ও উজ্জ্বল রাখতে সাহায্য করে।

ক্লান্তি দূর করে : সারাদিন অনেক কাজের চাপ ছিল, প্রচুর খাটনি গিয়েছে, আপনি ক্লাল্ত থাকবেন এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু সারাদিন পর বাড়ি ফিরে যদি আপনি ১ গ্লাস কুসুম গরম দুধ পান করেন দেখবেন, আপনার সব ক্লান্তি নিমিষেই দূর হয়ে যাবে। তাই প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় দুধ অবশ্যই রাখুন এবং পরিবারের সকলকে দুধ খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে বলুন।

পিডিএসও/তাজ