যৌন সম্পর্কের পর ট্রাম্প অর্থ দিতে চেয়েছিলেন : প্লেবয় মডেল

প্রকাশ : ২৩ মার্চ ২০১৮, ১৬:৩৮

অনলাইন ডেস্ক

বিখ্যাত প্লেবয় মডেল ক্যারেন ম্যাকডুগাল দাবি করেছেন, প্রথমবার যৌন সম্পর্কের পর প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তাকে অর্থ দিতে চেয়েছিলেন। তিনি জানানস, তার সঙ্গে ট্রাম্পের ১০ মাস ধরে সম্পর্ক ছিল। প্রাপ্তবয়স্কদের মার্কিন সাময়িকী ‘প্লেবয়’-এর সাবেক এই মডেল মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল বৃহস্পতিবার ম্যাকডুগাল সিএনএনের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্পের সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা জানান। তিনি দাবি করেন, তার সঙ্গে ট্রাম্পের প্রথমবার যৌন সম্পর্ক হয়েছিল ২০০৬ সালে বেভারলি হিলস হোটেলে। 
ওই ঘটনা সম্পর্কে ম্যাকডুগালর বলেন, সম্পর্কের পর তিনি আমাকে অর্থ দিতে চান। কিন্তু এটা কীভাবে নেওয়া হয়, সত্যিই আমি তা জানতাম না। আমি তার (ট্রাম্প) দিকে কিছুক্ষণ তাকিয়ে থেকে বললাম, আমি অমন না। আপনি যেমন ভাবছেন তেমন মেয়ে আমি নই। তিনি জানান, সেদিন বাড়ি ফেরার পথে তিনি কেঁদে ফেলেছিলেন। আর ট্রাম্পের সঙ্গে আবারও তার সাক্ষাৎ হবে, তা তিনি ভাবেননি। তবে এরপর ট্রাম্পের আহ্বানে তিনি আবার তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। 
সাক্ষাৎকারে বারবার ট্রাম্পকে খুবই মুগ্ধকর ও মিষ্টি স্বভাবের বলে আখ্যায়িত করে ম্যাকডুগাল দাবি করেন, ট্রাম্পের সঙ্গে তার সম্পর্ক ২০০৭ সালের এপ্রিল মাস পর্যন্ত টিকেছিল। তিনি সম্পর্ক ভেঙে দিয়েছিলেন, কারণ মনে মনে তিনি নিজেকে দোষী বলে মনে করেছিলেন। তিনি দাবি করেন, ট্রাম্পের সঙ্গে তিনি নিউইয়র্ক, নিউ জার্সি ও ক্যালির্ফোনিয়ার বিভিন্ন জায়গায় যান। আর ট্রাম্পের সঙ্গে তার বেশ কয়েকবার যৌন সংসর্গ ঘটে।
ট্রাম্প তার বর্তমান স্ত্রী মেলানিয়াকে বিয়ে করেন ২০০৫ সালে। তাদের ছেলে ব্যারনের জন্ম হয় ২০০৬ সালে। পক্ষান্তরে ম্যাকডুগালের সঙ্গে কোনো ধরনের সম্পর্কের কথা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অস্বীকার করেছেন বলে হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। অবশ্য গতকালের সাক্ষাৎকার নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি তিনি।

পিডিএসও/মুস্তাফিজ