ফেলনা নয় লেবুর খোসা

প্রকাশ : ০৭ জানুয়ারি ২০১৮, ২০:১৪

অনলাইন ডেস্ক

আমরা খাবারের সময় সাধারণত লেবুর রসটাই খাই, রস চিপে বের করার পর খোসাটা ফেলে দেই। তবে লেবুর খোসার মধ্যে কিন্তু ভিটামিন ছাড়াও রয়েছে অনেক পুষ্টিগুণ। তিন থেকে চার ঘণ্টা লেবু ফ্রিজে রেখে দিন। এরপর ঠাণ্ডা লেবু থেকে খোসা ছাড়িয়ে নিন। দুপুর বা রাতের খাবারের সঙ্গে লেবুর খোসা খেতে পারেন। জুসের সঙ্গেও খেতে পারেন লেবুর খোসা।

কিভাবে খাবেন লেবুর খোসা :  ফ্রিজে না রেখেও সতেজ লেবুর খোসা কেটে খেতে পারেন। সালাদেও লেবুর খোসা দিতে পারেন। এতে স্বাদ বাড়বে। লেবুর খোসা উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে, ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে, হাড়কে শক্তিশালী করে, দাঁতের স্বাস্থ্যকে ভালো রাখে এবং ফাঙ্গাসজনিত সংক্রমণ প্রতিরোধ করে।শরীরের বাজে কোলেস্টেরল কমাতে কাজ করে ও হৃৎপিণ্ডের স্বাস্থ্যকে ভালো রাখে। 

ত্বকের উপকারিতায় : খাওয়া ছাড়াও লেবুর খোসা অনেক কাজে লাগাতে পারেন।  লেবুর খোসা খুব হালকাভাবে ত্বকে ঘষুন। এটি ত্বকে টনিকের মতো কাজ করবে। এরপর হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। তবে চোখে যেন না লাগে। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে লেবুর খোসা নখের মধ্যে ঘষুন। এতে নখ শক্ত ও সাদা হবে।

সেইসঙ্গে পায়ের পাতায় থাকা ক্যালুসের মধ্যে লেবুর খোসা ঘষুন। এছাড়া খোসা আক্রান্ত স্থানে রেখে পায়ে ব্যান্ডেজ করুন। এভাবে করলে কয়েক দিনের মধ্যে ক্যালুস সেরে যাবে। সূত্র : হেলদি ফুড হাউস

পিডিএসও/তাজ