এফআর টাওয়ারের ফারুকসহ ৩ জনের জামিন বাতিল

প্রকাশ : ০৫ নভেম্বর ২০১৯, ১৮:০২

অনলাইন ডেস্ক

নকশা জালিয়াতির মামলায় বনানীর এফআর টাওয়ারের অন্যতম মালিক এসএমএইচআই ফারুকসহ তিন আসামির জামিন বাতিল করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। অপর দুজন হলেন রাজউকের সাবেক ইমারত পরিদর্শক আওরঙ্গজেব সিদ্দিকী (নান্নু) ও শওকত আলী। আদেশের অনুলিপি পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে তাদের বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আবেদনে মঙ্গলবার বিচারপতি নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন। আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খুরশিদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হেলেনা বেগম চায়না।

খুরশীদ সাংবাদিকদের বলেন, বনানীর এফআর টাওয়ার সংক্রান্ত দুদকের মামলায় এই তিন আসামির সঙ্গে অপর মালিক বিএনপির নেতা তাসভীর উল ইসলামের জামিন বাতিল চেয়ে আবেদন করা হয়। আদালত তাসভীরের জামিন বাতিলের আবেদনটি খারিজ করে দিয়েছে। বাকিদের জামিন কেন বাতিল করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারির পাশাপাশি তাদের জামিন বাতিলে অন্তর্বর্তী আদেশ দেন।

আদেশের অনুলিপি পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে বিজ্ঞ বিচারিক আদালতে তাদের আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে। মামলাটিতে ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে বলে তিনি জানান।

আসামিরা ১৯ অগাস্ট থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময়ের মধ্যে ভিন্ন দিনে ঢাকার মহানগর জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালত থেকে জামিন নেন। গত ২৮ মার্চ এফআর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ২৭ নিহত হওয়ার পর এই ভবন নির্মাণে নানা অনিয়মের বিষয়গুলো বেরিয়ে আসতে থাকে।

কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউয়ে ওই ভবনের জমির মূল মালিক ছিলেন প্রকৌশলী এস এম এইচ আই ফারুক। অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে ভবনটি নির্মাণ করে রূপায়ন হাউজিং এস্টেট লিমিটেড। সে কারণে সংক্ষেপে ভবনের নাম হয় এফআর টাওয়ার। নকশা জালিয়াতির মাধ্যমে ভবনটিতে কয়েকটি তলা বাড়ানোর অভিযোগে গত ২৫ জুন তাসভীরসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করেন দুদক কর্মকর্তা মো. আবু বকর সিদ্দিক।

পিডিএসও/তাজ