এ্যানির অবৈধ সম্পদের মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ

প্রকাশ : ১৪ মে ২০১৯, ১৭:৫৭

অনলাইন ডেস্ক

বিএনপি নেতা শহিদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানির বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের দায়ের করা জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলা বাতিল প্রশ্নে জারি করা রুল খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে বিচারিক আদালতে চলা মামলাটির ওপর স্থগিতাদেশ তুলে নিয়ে ছয় মাসের মধ্যে মামলাটি শেষ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার এ রায় দেন। রুল খারিজ হওয়ায় মামলাটি চলতে এখন আইনগত কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

রুল শুনানিতে দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশিদ আলম খান। আসামি পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জয়নুল আবেদীন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হেলেনা বেগম চায়না। 

খুরশীদ আলম খান বলেন, ২০১৬ সালের ১ সেপ্টেম্বর শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানির আবেদনে হাইকোর্ট মামলার কার্যক্রম স্থগিত করার পাশাপাশি কেন মামলাটি বাতিল করা হবে না তা জানতে রুল জারি করেছিল। সে রুলটিই আজ খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে স্থগিতাদেশ তুলে নিয়ে ছয় মাসের মধ্যে মামলাটি নিষ্পত্তি করতে নির্দেশ দিয়েছেন। ফলে মামলাটি চলতে আইনগত আর কোনো বাধা থাকছে না। 

ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য এ্যানির সম্পদের বিষয়ে ২০১৪ সালের জানুয়ারি অনুসন্ধান শুরু করে দুদক। এরপর ৯ মাসের মাথায় ৯ অক্টোবর সম্পদের তথ্য গোপন ও জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে রমনা থানায় এ মামলা করেন কমিশনের উপপরিচালক মঞ্জুর মোর্শেদ। 

এ্যানির মোট ১ কোটি ৪০ লাখ ৪২ হাজার ৬৭০ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ পাওয়া গেছে বলে অভিযোগ করা হয় মামলায়। এছাড়া দুদকে দাখিল করা সম্পদের হিসাব বিবরণীতে তিনি ১৩ লাখ ১৩ হাজার ৯৪০ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করেছেন বলেও অভিযোগ। ২০১৬ সালের ২৪ মে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত এ মামলায় এ্যানির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে।

পিডিএসও/তাজ