নুসরাত হত্যা : সহপাঠী মণি ৫ দিনের রিমান্ডে

প্রকাশ : ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১৩:০৪

অনলাইন ডেস্ক

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার মামলায় তার সহপাঠী আলিম পরীক্ষার্থী কামরুন নাহার মণিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআইয়ের পুলিশ পরিদর্শক মো. শাহ আলম  বুধবার কামরুন নাহার মণিকে ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক শরাফউদ্দিন আহমেদ পাঁচ দিনের হেফাজতে নিয়ে আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন বলে আদালত পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

নুসরাতের মত কামরুন নাহার মণিও এবার সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসা থেকে আলিম পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। ৬ এপ্রিল পরীক্ষা চলাকালে মাদরাসার একটি ভবনের ছাদে যে পাঁচজন নুসরাতের গায়ে আগুন দিয়েছিল, তাদের মধ্যে মণিও ছিলেন বলে পিবিআইয়ের ভাষ্য।

ওই মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এনেছিলেন নুসরাত। গত ২৬ মার্চ নুসরাতের মা শিরীনা আক্তার মামলা করার পরদিন সিরাজকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ।

ওই মামলা প্রত্যাহার না করায় পরীক্ষার হল থেকে ছাদে ডেকে নিয়ে নুসরাতের গায়ে আগুন দেয় বোরকা পরা কয়েকজন। আগুনে শরীরের ৮৫ শতাংশ পুড়ে যাওয়া নুসরাত ১০ এপ্রিল রাতে মারা যান।

পিবিআই প্রধান বনজ কুমার মজুমদার গত সোমবার বলেন, আগুন দেওয়ার সময় প্রথমে চারজনের নাম পাওয়া গেলেও তদন্তকালে নিশ্চিত হওয়া গেছে পাঁচজন ছিল। এই পাঁচজনের মধ্যে দুজন নারী। ওই দুই নারীর মধ্যে অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলার ভায়রার মেয়ে উম্মে সুলতানা পপিকে আগেই সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেফতার করে রিমান্ডে নিয়েছিল পিবিআই।

পিডিএসও/হেলাল