‘রাষ্ট্রযন্ত্রের পৃষ্ঠপোষকতায় ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা’

প্রকাশ : ১০ অক্টোবর ২০১৮, ১৪:১৩ | আপডেট : ১০ অক্টোবর ২০১৮, ১৫:০৭

অনলাইন ডেস্ক
ama ami
এই লাল দালান থেকে ঘোষিত হয় গ্রেনেড হামলা মামলার রায়

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ শাহেদ নূর উদ্দীন বলেছেন, রাজনীতি মানেই কি বিরোধীদলের ওপর পৈশাচিক আক্রমণ। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা শুধু আক্রমণই ছিল না, এটি ছিল একটি দলকে নেতৃত্বশূন্য করার ঘৃণ্য অপচেষ্টা।

তিনি বলেন, রাজনীতিতে ক্ষমতাসীন ও বিরোধীদের মধ্যে শত বিরোধ থাকবে। তাই বলে বিরোধী দলকে নেতৃত্বশূন্য করার প্রয়াস কেন, এটা কাম্য নয়। আজ বুধবার দুপুরে গ্রেনেড হামলা মামলা রায়ের পর্যবেক্ষণে বিচারক এ কথা বলেন। 

রায়ের পর্যবেক্ষণে বলা হয়, গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে ক্ষমতায় যে দলই থাকবে, বিরোধী দলের প্রতি তাদের উদারনীতি প্রয়োগের মাধ্যমে গণতন্ত সুপ্রতিষ্ঠিত করার প্রচেষ্টা থাকতে হবে। বিরোধীদলের নেতৃবৃন্দকে হত্যা করে ক্ষমতাসীনদের রাজনৈতিক ফায়দা অর্জন করা মোটেও গণতান্ত্রিক চিন্তার বহিঃপ্রকাশ নয়।

রায়ের পর্যবেক্ষণে আরো বলা হয়, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে হত্যার পর জাতীয় চার নেতা নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। কিন্ত এরপরও ষড়যন্ত্র থেমে না থেকে তা চলমান থাকে। তৎকালীন রাষ্ট্রযন্ত্রের সহায়তায় প্রকাশ্য দিবালোকে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালানো হয়। ওই হামলা ছিল বিরোধীদলকে নেতৃত্বশূন্য করার অপচেষ্টা।

পিডিএসও/হেলাল