ভুল চিকিৎসায় শিশু রাইফার মৃত্যু : ক্ষতিপূরণ দিতে রুল

প্রকাশ : ১৪ আগস্ট ২০১৮, ১৭:১৯

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামের ম্যাক্স হাসপাতালে চিকিৎসকের অবহেলা ও ভুল চিকিৎসায় শিশু রাফিদা খান রাইফার মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবারকে কেন যথাযথ ক্ষতিপূরণ দিতে নির্দেশ দেওয়া হবে না— তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

সেইসঙ্গে অবহেলা ও ভুল চিকিৎসার কারণে হাসপাতাল এবং সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে কেন যথাযথ ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হবে না এবং চিকিৎসার অবহেলা বা ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু হলে বা ক্ষতিগ্রস্ত হলে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য কেন নীতিমালা তৈরির নির্দেশ দেওয়া হবে না— তা জানতে চাওয়া হয়েছে রুলে।

রাইফার বাবা সাংবাদিক মোহাম্মদ রুবেল খানের করা এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল মঙ্গলবার এ রুল জারি করেন। আগামী ৪ সপ্তাহের মধ্যে স্বাস্থ্য সচিব, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (হাসপাতাল), বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেন্টাল কাউন্সিলের সভাপতি, ম্যাক্স হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং সংশ্লিষ্ট তিন চিকিৎসককে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

সাংবাদিক রুবেল খান গত ৯ অগাস্ট হাইকোর্টে এই রিট আবেদন করেন। মঙ্গলবার রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী তাজুল ইসলাম ও মোহাম্মদ এনাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

তাজুল ইসলাম পরে সাংবাদিকদের বলেন, ভুল বা অপচিকিৎসা বা চিকিৎসকের অবহেলার কারণে কারো মৃত্যু হলে ক্ষতিপূরণের নির্ধারণের ব্যাপারে দেশের প্রচলিত কোনো আইনে কোনো বিধান নেই। ‘বিশ্বের প্রায় সব দেশেই কিন্তু এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট নীতিমালা এবং বিধান আছে। ভুল বা অপচিকিৎসায় কারো মৃত্যু হলে ক্ষতিপূরণ কত হবে, ক্ষতিগ্রস্ত হলে ক্ষতিপূরণ কত হবে তা সুনির্দিষ্ট করা আছে কোনো কোনো দেশে। ‘আমাদের দেশে এ ধরনের নীতিমালা না থাকায় আদালতগুলোকে নির্দেশ দিতে হচ্ছে এত লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ’ 

দৈনিক সমকালের চট্টগ্রাম ব্যুরোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রুবেল খানের আড়াই বছর বয়সী মেয়ে রাইফা গলায় ব্যথা নিয়ে গত ২৮ জুন বিকালে ম্যাক্স হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর ২৯ জুন রাতে তার মৃত্যু হয়।

ঘটনা তদন্তে স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে একটি কমিটি করে দেওয়া হয়। পাশাপাশি চট্টগ্রামের সিভিল সার্জনের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি কমিটি ওই ঘটনার তদন্ত করে। সিভিল সার্জনের তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে কর্তব্যরত চিকিৎসক, নার্স ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দায়িত্বে অবহেলা এবং গাফিলতির প্রমাণ পাওয়ার কথা জানিয়ে তিন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়। এই তিন চিকিৎসক হলেন,  ডা. বিধান রায় চৌধুরী, ডা. দেবাশীষ সেনগুপ্ত এবং ডা. শুভ্র দেব। তাদের মধ্যে দেবাশীষ ও শুভ্রকে চাকরিচ্যুত করার কথা জানায় ম্যাক্স কর্তৃপক্ষ।

পিডিএসও/তাজ