নবম ওয়েজ বোর্ড : কেন বেআইনি নয় জানতে চেয়ে রুল

প্রকাশ : ০২ জুলাই ২০১৮, ১৮:২০ | আপডেট : ০২ জুলাই ২০১৮, ১৮:৩৬

অনলাইন ডেস্ক

সাংবাদিক ও সংবাদপত্র এবং বার্তা সংস্থার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা নির্ধারণে গঠিত নবম ওয়েজ বোর্ড কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না— তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

রিটকারীর পক্ষ থেকে ওয়েজ বোর্ডের কার্যক্রমের ওপর স্থগিতাদেশ চাইলেও আদালত তা নাকচ করে দেয়। গতকাল রোববার এ আদেশ দেওয়া হলেও সাংবাদিকরা  এ তথ্য জানতে পেরেছেন আজ সোমবার।

সংশ্লিষ্ট কোর্টের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একরামুল হক টুটুল রুল জারির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

নিউজপেপারর্স ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের (নোয়াব) করা এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করেন। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে তথ্য সচিব, শ্রম সচিব ও ওয়েজ বোর্ডের চেয়ারম্যান নিজামুল হককে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এদিন আদালতে রিটকারীর পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট ইউসুফ আলী। রিট আবেদনে বলা হয়, নবম ওয়েজবোর্ড তথ্য মন্ত্রণালয় অবৈধভাবে গঠন করেছে। এটা গঠনের দায়িত্ব শ্রম মন্ত্রণালয়ের।

প্রসঙ্গত,  ২০১৫ সালে সরকারি কর্মচারীদের নতুন বেতন কাঠামো ঘোষণার পর থেকে নতুন বেতন কাঠামোর দাবি জানিয়ে আসছে সাংবাদিকদের সংগঠনগুলো। এই দাবিতে দীর্ঘ দিন ধরে ধারাবাহিক কর্মসূচি পালন করছে তারা।

পরে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু গত এপ্রিলে বলেছিলেন, সেপ্টেম্বরের মধ্যে নতুন বেতন কাঠামো কার্যকরের সব প্রস্তুতি শেষ করা হবে। তার আগে মহার্ঘ্য ভাতা ঘোষণার জন্যও সব প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। কিন্তু এরমধ্যেই ওয়েজ বোর্ডের কার্যক্রমে স্থগিতাদেশ চেয়ে রিট করেন নোয়াব সভাপতি মতিউর রহমান।

পিডিএসও/তাজ