ধর্ষণের পর হত্যা মামলায় ৪ আসামির মৃত্যুদন্ড

প্রকাশ : ১১ জুন ২০১৮, ১৯:৫৫

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জে খাদিজা নামের ১০ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার ১৫ বছর পর ৪ আসামীর মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলো-সুজন, আলামীন, আবুল কালাম ও শাহাদাৎ। এরা চারজন বন্ধু।  সোমবার নারায়ণগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মো: জুয়েল রানা আসামীরা অনুপস্থিতিতে এ আদেশ দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি রকিব উদ্দিন আহমেদ মামলার এজাহার উল্লেখ করে জানান, আসামীদের অনুপস্থিতিতেই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইবুনাল আদালতে এ রায় দেয়া হয়েছে। গত ২০০৩ সালের ১৪ জানুয়ারী সকালে ফতুল্লার আলীরটেক এলাকায় আলী আকবরের মেয়ের লাশ  তাদের বাড়ির পাশের এক সরিষা ক্ষেত থেকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় খোদেজার বড় ভাই আনসার আরী বাদি হয়ে উল্লেখিত চারজনকে আসামী করে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

তিনি আরো জানান, এই মামলায় ১৭ জন স্বাক্ষীর মধ্যে আদালত ৫ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ করেন। নিহত খোদেজার ময়না তদন্তের রিপোর্টে ধর্ষণের পর শ্ব্সারোধ করে হত্যার আলামত পাওয়া যায়।

প্রসঙ্গত, গত ২০০৩ সালের ১৩ জানুয়ারী সন্ধ্যায় সদর উপজেলার আলীরটেক এলাকার আলী আকবরের দশ বছর বয়সী মেয়ে খাদিজাকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায় একই এলাকার চার যুবক। এরপর থেকে খাদিজা নিখোঁজ থাকে। পরদিন সকালে বাড়ির পাশে একটি সরষে ক্ষেত থেকে খাদিজার লাশ উদ্ধার হয়। এ ঘটনায় খোদেজার বড় ভাই আনসার আরী বাদি হয়ে উল্লেখিত চারজনকে আসামী করে নারায়ণগঞ্জ সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। তবে ঘটনার পর থেকেই চারজন পলাতক রয়েছে। পুলিশ এখন পর্যন্ত তাদের গ্রেফতার করতে পারেনি। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চার আসামিকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

পিডিএসও/রানা