প্রাইভেটকারে তরুণীকে ধর্ষণ : রনির ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন

প্রকাশ : ১১ জুন ২০১৮, ১৫:১২ | আপডেট : ১১ জুন ২০১৮, ১৫:২২

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের কলেজগেটে প্রাইভেটকারে তুলে এনে এক তরুণীকে ধর্ষণের সময় জনতার হাতে আটক মাহমুদুল হক রনিকে (৩৫) শেরেবাংলা নগর থানা থেকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষণ মামলায় রনিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেছে পুলিশ।

আজ সোমবার শেরেবাংলা নগর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, অভিযুক্ত মাহমুদুল হক রনিকে সকালে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আটকের সময় ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যাওয়া গাড়ির চালক ফারুককে গ্রেফতারসহ ঘটনার বিষয়ে আরও তথ্য জানতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রনির ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা।

প্রসঙ্গত, গত শনিবার দিনগত রাত ৩টার দিকে কলেজগেট সিগন্যালে প্রাইভেটকারের (ঢাকা মেট্রো- গ ২৯-৫৪১৪) ভেতরে এক তরুণীকে ধর্ষণকালে মদ্যপ রনি ও গাড়িচালক ফারুককে আটক করে জনতা। এ সময় রনি ও ফারুককে ব্যাপক মারধর করে উপস্থিত জনতা। একপর্যায়ে ফারুক বিবস্ত্র অবস্থায় ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। আর রনিকে শেরেবাংলা নগর থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে জনতা।

রাফি আহমেদ নামে এক ব্যক্তি ওই ঘটনার বিবরণসহ একটি ভিডিওচিত্র সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করলে তা ভাইরাল হয়ে যায়। এরপর রাফি আহমেদকে মোবাইল ফোনে বারবার হত্যার হুমকি দেয় অভিযুক্ত রনির ঘনিষ্ঠজনরা। তারপর রাফি ফেসবুক থেকে তার স্ট্যাটাস ও ভিডিও মুছে ফেলেন।

রোববার রাতে রনির গাড়িতে থাকা ওই দুই তরুণী শেরেবাংলা নগর থানায় এসে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেন। মামলায় রনির বিরুদ্ধে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগ এবং তার গাড়িচালক ফারুকের বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহায়তার অভিযোগ করেন।

এদিকে মামলার পর দুই তরুণীকে পুলিশের নিরাপত্তা হেফাজতে নিয়ে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

পিডিএসও/তাজ