আট দিবস পালনে বাধ্য করার রিট খারিজ

প্রকাশ : ০৮ জানুয়ারি ২০১৮, ১৪:১৭

অনলাইন ডেস্ক

স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ, জাতীয় চার নেতা ও শহীদ বুদ্ধিজীবী কেন্দ্রিক ৮টি বিশেষ দিবস রাজনৈতিক দলসহ সব নাগরিকের বাধ্যতামূলক পালনের নির্দেশনা চেয়ে করা রিট আবেদনটি সরাসরি খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সোমবার বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রিট খারিজ করে এ আদেশ দেন।আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মোজাম্মেল হক। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তাপস কুমার বিশ্বাস। রিট খারিজের বিষয়ে আদালত বলেন, নাগরিকদের এসব দিবস পালনে বাধ্য করার নির্দেশনা দেয়া আমাদের আওতায় পড়ে না। এটা দেখার দায়িত্ব জনগণের নির্বাচিত সংসদের।

এর আগে বুধবার মুক্তিযোদ্ধা, স্বাধীনতা, বঙ্গবন্ধু, জাতীয় চার নেতা ও শহীদ বুদ্ধিজীবীসংক্রান্ত ৮টি দিবস দেশের রাজনৈতিক দলসহ সব নাগরিকের পালন বাধ্যতামূলক করতে নির্দেশনা চেয়ে রিট করা হয়। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোজাম্মেল হক ও মো. শহীদুল ইসলাম রিট আবেদনটি করেন, যা পর দিন বৃহস্পতিবার শুনানির জন্য ওঠে। 

দিবসগুলো হল- বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ, ১৭ এপ্রিল মুজিবনগর দিবস, ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস, ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস, ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস, ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস, ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস, ৩ নভেম্বর জেলহত্যা দিবস ও ‘জয় বাংলা’ স্লোগান। এসব দিবস সবার জন্য পালন বাধ্যতামূলক নিশ্চিত না করা পর্যন্ত আসন্ন জাতীয় নির্বাচন স্থগিতের আরজি জানানো হয়।

রিটে এসব দিবস পালনে ব্যর্থ হলে রাজনৈতিক দলগুলোর নিবন্ধন বাতিল চাওয়া হয়। এসবের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত পরবর্তী জাতীয় সংসদ নির্বাচন স্থগিত রাখার আবেদন জানানো হয় রিটে। সেইসঙ্গে রাজনৈতিক দলের গঠনতন্ত্রে এই ৮টি দিবস পালন করার বিষয় অন্তর্ভুক্ত করার নির্দেশনা চাওয়া হয়।

পিডিএসও/তাজ