অর্থমন্ত্রীকে ‘স্যানিটারি ন্যাপকিন’ পাঠিয়ে প্রতিবাদ জানাল ভারতীয় নারীরা

প্রকাশ : ১৩ জুলাই ২০১৭, ১৭:১৮

অনলাইন ডেস্ক

স্যানিটারি ন্যাপকিন’র ওপর থেকে পণ্য পরিসেবা কর বা জিএসটি (গুডস অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্যাক্স) তুলে নেওয়ার দাবি জানিয়ে ভারতের অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলিকে স্যানিটারি ন্যাপকিন পাঠাল বাম সমর্থিত ছাত্র সংগঠন ‘স্টুডেন্ট ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া’ (এসএফআই) এবং অল ইন্ডিয়া ডেমোক্রেটিক ওমেন’স অ্যাসোশিয়েশন (এআইডিডব্লিউএ)। ন্যাপকিনের প্যাকেটের ওপর ‘ব্লীড উইদাউট ফিয়ার’ লিখে সেই স্যানিটারি ন্যাপকিনের প্যাকেটগুলিকে পোস্ট করে পাঠানো হয় জেটলির কাছে।  

উল্লেখ্য, গত ১ জুলাই থেকে ভারতে আনুষ্ঠানিকভাবে চালু হয় জিএসটি। এর উদ্দেশ্য হল সারা ভারতে ‘এক দেশ এক কর ব্যবস্থা’ চালু করা। কোন কোন সামগ্রীতে যেমন কোন কর দিতে হচ্ছে না আবার তেমনি কিছু কিছু পণ্যে মোট চারটি স্তরে কর নেওয়া শুরু হয়েছে। নারীদের স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় স্যানিটারি ন্যাপকিনকে বিলাসবহুন পণ্যের তালিকায় ফেলা হয়েছে এবং এর ওপর জিএসটি ধার্য করা হয়েছে ১২ শতাংশ (আগে ছিল ১৩.৭ শতাংশ কর)। এরপর থেকেই বিভিন্ন মহল থেকে স্যানিটারি ন্যাপকিনকে কর মুক্ত করার দাবি জানানো হয়। স্যানিটারি ন্যাপকিনে করমুক্তি চেয়ে ভারতের অর্থমন্ত্রীর কাছে সেসময় চিঠি পাঠিয়েছিলেন ভারতের শিশু ও নারী কল্যাণ উন্নয়ন মন্ত্রী মানেকা গান্ধী। মানেকার যুক্তি ছিল এই পণ্যটিকে করমুক্ত করা হলে গ্রামীণ এলাকায় গরিব নারীদের মধ্যে স্যানিটারি ন্যাাপকিনের ব্যবহার বাড়ানো সম্ভব হবে। সুস্থ ও স্বচ্ছ ভারত গড়ার লক্ষ্যেই এটা করা উচিত। যদিও জেটলির নেতৃত্বাধীন জিএসটি কাউন্সিল সেই প্রস্তাবে সাড়া দেয়নি। 

এসএফআই’এর প্রেসিডেন্ট বিকাশ ভাদৌরিয়া জানান ‘স্যানিটারি ন্যাপকিনকে বিলাসবহুল পণ্য হিসাবে বিবেচনা করে সেইমতো কর চাপানো হয়েছে। কিন্তু এটা নারীদের প্রয়োজনীয় একটি জিনিস। দাম বাড়লে গরিব নারী ও তরুণীরা এই ন্যাপকিন ব্যবহারের ক্ষেত্রে উৎসাহ হারাতে পারেন’।  

এর আগে সোমবারই ন্যাপকিনকে করমুক্ত করার দাবি নিয়ে একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেই ভিডিওতে দেখা গেছে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা দেশজুড়ে সমস্ত নারীদের এই আন্দোলনে নামার আহ্বান জানিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের তরফে দাবি ছিল ‘যদি কন্ডোম ও পিল’কে করমুক্ত করা হয়, তবে স্যানিটারি ন্যাপকিনকেও করমুক্ত করা হবে না কেন? আর ভিডিওতে ওই আহ্বানের পরই মঙ্গলবার অরুণ জেটলিকে স্যানিটারি ন্যাপকিনের প্যাড পাঠিয়ে প্রতিবাদ জানানো হল।

পিডিএসও/রিহাব