‘পা’ ঢাকা থাকলেও খোলা ছিল ‘চুল’

হিজাব পরেননি মেলানিয়া-ইভাঙ্কা!

প্রকাশ : ২০ মে ২০১৭, ২০:২৯

অনলাইন ডেস্ক

সৌদি আরব পৌঁছেই বিতর্কে জড়ালেন মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প ও ইভাঙ্কা। রিয়াদের রাজা খালিদ বিমানবন্দরে ডোনাল্ড ট্রাম্পের হাত ধরে যখন এয়ার ফোর্স ওয়ান থেকে নেমে আসেন মেলানিয়া, তখন ইসলামের রীতি মেনে তার মাথায় ছিল না হিজাব। মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিদেশ সফরের প্রথম দিনে শনিবার সকালে সৌদি আরব আসেন তারা। জানা গেছে, আরব দেশের রীতি মেনে পা পর্যন্ত কালো রঙের পোশাক পরলেও নিজের বাদামি রঙের চুল খোলাই রাখলেন মেলানিয়া। এর কিছুক্ষণ পরে স্বামী জ্যারেড কুশনারের হাত ধরে নামেন মার্কিন প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা তথা তার মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্প। তিনিও মাথায় হিজাব পরেননি।  
এদিকে তার আগে মিশেল ওবামা হিজাব না পরায় সে সময় টুইটারে ইসলামী রীতি না মানার জন্য মিশেলকে কটাক্ষ করেছিলেন ট্রাম্প। দুবছর পর তার স্ত্রীও রীতি না মানায় এবার টুইটারে কটাক্ষ শুনতে হচ্ছে ডোনাল্ড ট্রাম্পকেও।
নারীদের বাইরে ঢোলা কালো পোশাক বা আবায়া এবং মাথা ঢাকার জন্য লজ্জাবরণ বস্ত্র বা হিজাব পরা সৌদি আরবের রীতি। যদিও বিদেশিদের ক্ষেত্রে এটা সব সময় প্রযোজ্য নয়। কিন্তু সাধারণত অন্য রাষ্ট্রের নারী প্রধান বা নেত্রীরা মুসলিম দেশে হিজাব ব্যবহার করেন। সেই মতো এ বছরের শুরুতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে এবং জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেলও ইসলামী রীতি মেনে হিজাব ব্যবহার করেছিলেন।  
২০১৫ সালে সৌদি রাজা আবদুল্লার মৃত্যুর পরে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সফরসঙ্গী হিসেবে গিয়েছিলেন তার স্ত্রী মিশেল ওবামা। তিনি সে সময় হিজাব পরেননি। একইভাবে আর এক সাবেক মার্কিন ফার্স্ট লেডি লরা বুশ এবং ওবামার বিদেশ সচিব হিলারি ক্লিন্টনও হিজাব ব্যবহার করেননি। 

পিডিএসও/মুস্তাফিজ