ভারতে বিতর্কিত যুদ্ধবিমান রাফাল, উচ্ছ্বসিত মোদি

প্রকাশ : ২৯ জুলাই ২০২০, ১৯:৩২ | আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২০, ২০:০০

পার্থ মুখোপাধ্যায়, কলকাতা

ফ্রান্স থেকে আসা রাফাল বিমানের প্রথম ব্যাচের পাঁচটি বিমান ভারতের মাটি স্পর্শ করেছে। বুধবার বিকেলে হরিয়ানার আম্বালা বায়ুসেনা ঘাঁটিতে অবতরণ করে বিমানগুলি। আগে থেকেই নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয় গোটা এলাকা। আম্বালাতেই আপাতত থাকবে রাফাল স্কোয়াড্রন। সোমবার ফ্রান্সের মেরিগন্যাক এয়ারবেস থেকে রাফালের পাঁচটি বিমান নিয়ে রওনা দেন ভারতীয় পাইলটরা। ৭০০০ কিলোমিটার পেরিয়ে বুধবার বিমনগুলো ভারতে পৌঁছায়। এর মধ্যে মাঝ-আকাশেই জ্বালানি ভরিয়েছে বিমানগুলি। একবারই থেমেছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে। পাঁচটি জেটের মধ্যে তিনটি এক আসনবিশিষ্ট ও দুটি দুই আসনের।

রাফালের আগমন নিশ্ছিদ্র করতে আম্বালা এয়ারফোর্স স্টেশনের আশপাশে নানা নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রশাসন। ছবি তোলা বা ভিডিও শ্যুট করা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বায়ুসেনা ঘাঁটির তিন কিলোমিটার ব্যাসার্ধের মধ্যে ব্যক্তিগত ড্রোন ওড়ানোও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ঢুলকোট, বলদেব নগর, গারনালা ও পাঞ্জখোরা-সহ এয়ারবেস সংলগ্ন গ্রামগুলিতে জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা। চার বা তার বেশি লোকের জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এয়ারবেসের আশপাশের আবাসন এলাকায় চলছে পুলিশি টহলদারি। রাস্তায় রাস্তায় বসানো হয়েছে ব্যারিকেড।

এদিকে ভারতের মাটিতে রাফাল জেটকে স্বাগত জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সংস্কৃত ভাষায় ট্যুইট করে তিনি বলেছেন, দেশে নয়া দিগন্ত খুলে দিল রাফাল জেট। বুধবার রাফালের পাঁচটি বিমান আম্বালা এয়ারবেসে অবতরণ করার পরেই তাদের স্বাগত জানিয়ে ট্যুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। রাফালের ভারতে অবতরণের একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর ট্যুইটটি অনুবাদ করলে যা দাঁড়ায় তা হল- দেশকে সুরক্ষার থেকে বড় আশীর্বাদ আর কিছু হতে পারে না। দেশকে রক্ষাই সেরা যজ্ঞ। সম্মানের সঙ্গে আকাশ ছোঁও। স্বাগতম।