ভারতে করোনা ভ্যাকসিনের হিউম্যান ট্রায়াল শুরু

প্রকাশ : ১৩ জুলাই ২০২০, ২০:০৭

পার্থ মুখোপাধ্যায়, কলকাতা

মুক্তির দিন-ক্ষণ ঘিরে ধোঁয়াশার মধ্যেই শুরু হয়েছে ভারতে তৈরি করোনা প্রতিষেধক কোভ্যাক্সিন -এর প্রথম পর্যায়ের হিউম্যান ট্রায়াল। জানা গেছে, প্রথম পর্যায়ে ৩৭৫ জন স্বেচ্ছাসেবকের উপর কোভ্যাক্সিন প্রয়োগ করা হবে। আগের ঘোষণা মতো সোমবার থেকে পটনার এইমস -এ শুরু হচ্ছে কোভ্যাক্সিন-এর হিউম্যান ট্রায়াল। ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়ার থেকে অনুমতি পাওয়ার পর প্রথম ভারতীয় করোনা প্রতিষেধক হিসাবে হিউম্যান ট্রায়াল শুরু করেছে হায়দরাবাদের ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থা ভারত বায়োটেকের তৈরি প্রতিষেধক কোভ্যাক্সিন।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ এবং ন্যাশনাল ভায়রোলজি ইনস্টিটিউট-এর গবেষকরা যৌথভাবে তৈরি করেছেন ভারতের প্রথম করোনা টিকা কোভ্যাক্সিন। সোমবার পটনার এইমস-এ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নির্বাচিত মোট ১৮ জন স্বেচ্ছাসেবকের উপর কোভ্যাক্সিন প্রয়োগ করা হবে। এই স্বেচ্ছাসেবকদের বয়স ১৮ থেকে ৫৫ বছরের মধ্যে।

জানা গেছে, প্রতিষেধকের প্রথম ডোজ দেওয়ার পর স্বেচ্ছাসেবকদের ২-৩ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখবেন চিকিৎসকরা। তার পর তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে। এই পর্যায়ে শারীরিকভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ ব্যক্তিদের ওপরেই এই প্রতিষেধক প্রয়োগ করা হবে। জানা গেছে, স্বেচ্ছাসেবকদের কোভ্যাক্সিন -এর মোট তিনটি ডোজ দেওয়া হবে। তার পর পর্যবেক্ষণে রাখা হবে তাদের।

এদিকে আবারও ভারতে নিজের রেকর্ড নিজে ভাঙল করোনাভাইরাস। একদিনে মৃত্যু হয়েছে আরও ৫০০ জনের। ২৪ ঘণ্টায় সর্বাধিক আক্রান্ত হওয়ায় দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৮ দশমিক ৭৮ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ২৮ হাজার ৭০১ জন।

সোমবার সকালে প্রকাশিত মেডিক্যাল বুলেটিনে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, দেশে মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লক্ষ ৭৮ হাজার ২৫৪। এখনও চিকিত্‍‌সাধীন রয়েছেন ৩ লক্ষ ০১ হাজার ৬০৯ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫ লক্ষ ৫৩ হাজার ৪৭০ জন। ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১৮ হাজার ৮৫০ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এখনও পর্যন্ত দেশে সুস্থতার হার ৬৩.১%। মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৩ হাজার ১৭৪। দেশে করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত মহারাষ্ট্র। ২৪ ঘণ্টায় সেখানে ৭ হাজার ৮২৭ জন আক্রান্ত হয়েছে। করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১০ হাজার ২৮৯। দ্বিতীয় স্থানেই রয়েছে তামিলনাড়ু। সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বর্তমানে ১ লক্ষ ৩৮ হাজার ৪৭০। তামিলনাড়ুতে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৯৯৬ জনের। করোনায় আক্রান্তের তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে দিল্লি। সংক্রমণ এই মাত্রায় বেড়ে চললেও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহর দাবি, করোনা সংক্রমণের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ভালো জায়গায় আছে ভারত৷

অন্যদিকে অমিতাভ বচ্চন কেমন আছেন বা তার মানসিক পরিস্থিতি কী তা জানিয়ে নিজেই ট্যুইট করেছেন। রোববারও রাতে ট্যুইট করে খোঁজ দিয়েছেন তার স্বাস্থ্যের। যদিও সরাসরি নিজের শারীরিক অবস্থা নিয়ে কোনও কথা লেখেননি অমিতাভ বচ্চন। জানা গেছে তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল।ট্যুইটে নিজের কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বিগ বি লিখেছেন, অভিষেক-ঐশ্বরিয়া-আরাধ্যা ও তার প্রতি শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানিয়ে যে ভাবে সবাই তাদের জন্য প্রার্থনা করেছেন তার জন্য কৃতজ্ঞ। প্রত্যেককে আলাদা করে ধন্যবাদ জানাতে পারলেও অমিতাভ বচ্চন হাত জোর করে বলছেন সবার ভালোবাসার জন্য কৃতজ্ঞ। শনিবার রাতে মুম্বাইয়ের ভিলে পার্লের নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে অমিতাভ বচ্চনকে। করোনা আক্রান্ত জানার পরই তাকে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। জুহুতে অমিতাভের বাড়ি থেকে সবচেয়ে কাছেই নানাবতী হাসপাতাল, সেখানেই ভরতি করা হয়েছে ৭৭ বছরের অভিনেতাকে। নানাবতী হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, করোনার লক্ষণ রয়েছে অমিতাভের শরীরে। তিনি বেশ কিছুদিন ধরেই আইসোলেশনে ছিলেন। মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ তোপ বলেছেন,অমিতাভের শরীরে করোনার লক্ষণ নেই, তিনি আপাতত স্থিতিশীল।