আম্পান : মমতার পাশে মোদি ও শেখ হাসিনা

প্রকাশ : ২২ মে ২০২০, ১৬:৩০

পার্থ মুখোপাধ্যায়

অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলায় রাজ্যকে ১ হাজার কোটি টাকা অর্থসাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, মৃতদের পরিবারপিছু ২ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে এবং আহতদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে অর্থসাহায্য করা হবে। পাশাপাশি, ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ খতিয়ে দেখতে একটি কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক দলও রাজ্যে পাঠানো হবে।

এদিকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়কে ফোন করে আম্পানে ক্ষয়ক্ষতির বিষয়ে খোঁজখবর নিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার সকাল ১১টা ১০ মিনিটে মমতাকে টেলিফোন করেন এবং পশ্চিমবঙ্গে আঘাত হানা সাইক্লোনে ক্ষয়ক্ষতির বিষয়ে তার কাছে জানতে চান।

শেখ হাসিনা সাইক্লোনে ক্ষয়ক্ষতিতে মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি সমবেদনা জানান এবং অচিরেই রাজ্য সরকার এই ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে সামর্থ হবে বলে আশা প্রকাশ করেন। সমবেদনা জ্ঞাপন করায় মমতা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

ম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে শুক্রবার সকালে রাজ্যে আসেন নরেন্দ্র মোদি। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে সঙ্গে নিয়ে রাজ্যের বিধ্বস্ত জেলাগুলির পরিস্থিতি আকাশপথে পর্যবেক্ষণ করেন। এরপর বসিরহাটে প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে করতে সেখানে পৌঁছেন। সেখানে রাজ্যপাল ধনখড় এবং মমতাকে সঙ্গে নিয়ে আম্পানের জেরে জেলায় ক্ষয়ক্ষতির মূল্যায়ন করেন তিনি।

বৈঠকের পর ওড়িশায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যান ভারতের প্রধানমন্ত্রী। বসিরহাটে প্রশাসনিক বৈঠকে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই মোদি বলেছেন, কোভিডের সঙ্গে লড়াই করতে গেলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। আবার আম্পানের সঙ্গে লড়াই করতে গেলে সাধারণ মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যেতে হবে। এরকম কঠিন পরিস্থিতিতে মমতাজির নেতৃত্বে পশ্চিমবঙ্গ খুব ভালো লড়াই করছে। এই পরিস্থিতিতে আমরা সবাই ওদের সঙ্গে রয়েছি।

পিডিএসও/হেলাল