করোনায় আক্রান্ত নুসরাতের বাবা

প্রকাশ : ১৬ এপ্রিল ২০২০, ১৮:৫৯ | আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০২০, ১৯:৩৯

পার্থ মুখোপাধ্যায়, কলকাতা

পশ্চিমবঙ্গের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের অভিনেত্রী-সাংসদ নুসরাতের বাবার করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে কয়েক দিন আগে। এবার সেই অভিনেত্রী-সাংসদের মা এবং বোনকেও সরকারি নির্দেশিকা মেনে রাখা হয়েছে হোম কোয়ারেন্টাইনে। আপাতত ১৪ দিন বাড়িতেই থাকবেন তারা। এর আগে গত সোমবার নুসরাতের বৃদ্ধ বাবাকে বাইপাসের ধারে ফুলবাগান অঞ্চলে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, নুসরাতের বাবার জ্বর, সর্দিকাশি এবং শ্বাসকষ্ট রয়েছে। করোনার যাবতীয় উপসর্গ দেখা দেওয়ায়, তার লালারসের নমুনাও সংগ্রহ করা হয়। এর পর দিন, রিপোর্টে সংক্রমণের প্রমাণ পাওয়া যায়। সেই রিপোর্ট পাঠানো হয় স্বাস্থ্য ভবনেও।

অভিনেত্রী নুসরাতের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে করোনা সংক্রমণের কথা স্বীকার করে নিয়ে তিনি বলেন, বাবার প্রথম টেস্ট পজিটিভ এসেছে এ কথা সত্যি। কিন্তু তার বাবার বিদেশ যাত্রার কোনও ইতিহাস নেই। তিনি কলকাতার বাইরেও যাননি।বেশ কিছু সংবাদপত্রে যা লেখা হয়েছে তা ভুয়া। নুসরতের বাবা বাজারে গিয়েছিলেন। সেখান থেকেও সংক্রমণ হতে পারে।এই মুহূর্তে তার বাবার অবস্থা স্থিতিশীল। আগের থেকে অনেকটাই ভালো আছেন তিনি।

এদিকে দুদিন পরে পশ্চিমবঙ্গে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়েছে। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠক করে রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা বলেছেন,পশ্চিমবঙ্গে বর্তমানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৪৪। অডিট কমিটির রিপোর্ট অনুসারে, রাজ্যে বেড়েছে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যাও। রাজ্যে এই মুহূর্তে করোনায় মৃতের সংখ্যা ১০। গত ২৪ ঘণ্টায় সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯ জন। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, রাজ্যে এই মুহূর্তে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন প্রায় ৪০ হাজার মানুষ। ২০ হাজারের কাছাকাছি মানুষ তাদের কোয়ারেন্টাইন পূর্ণ করেছেন। আর এখন পর্যন্ত রাজ্যের চার হাজারের কাছাকাছি মানুষের করোনা টেস্ট হয়েছে। এই পরিস্থিতিতেও পরিস্থিতি কড়া হাতে মোকাবিলা করতে চাইছে রাজ্য সরকার। রাস্তায় বের হলে মাস্ক পরতেই হবে, স্পষ্ট করে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মাস্ক না পরে বের হলে পুলিশ বাড়ি পাঠিয়ে দেবে বলেও সতর্ক করেছেন তিনি। নিজের মাস্ক পরা দেখিয়ে তিনি সকলের উদ্দেশে আবেদন করেছেন, কটা দিন নিয়ম মেনে চলুন। সরকার সবসময় জনগণের পাশে রয়েছে।