ভারতে লকডাউন বৃদ্ধির প্রস্তাব

প্রকাশ : ০৮ এপ্রিল ২০২০, ১১:১৯ | আপডেট : ০৮ এপ্রিল ২০২০, ১১:৩০

পার্থ মুখোপাধ্যায়

সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আরও চার সপ্তাহ বন্ধ থাকা উচিত এবং ধর্মীয় সমাবেশে নিষেধাজ্ঞাও এই একই সময়ের জন্য বাড়ানো উচিত, এমনই প্রস্তাব দিয়েছেন কেন্দ্রের মন্ত্রী গোষ্ঠী। ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে যে, করোনাভাইরাসকে কেন্দ্র করে দেশব্যাপী লকডাউন একেবারেই উঠে যাবে না, বরং ধাপে ধাপে তোলা হবে নিষেধাজ্ঞা।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২৪ মার্চ তিন সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করেছেন যা ১৪ এপ্রিল শেষ হবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়ায় বিজেপি এবং কংগ্রেস বা অন্য বিরোধী শাসিত বেশ কয়েকটি রাজ্য ইঙ্গিত দিয়েছে যে, তারা এই লকডাউনের সময়সীমা বাড়াতে চায়।

সরকারি সূত্র জানিয়েছে, কেন্দ্র রাজ্যগুলির প্রস্তাব বিবেচনা করছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকরও বলেছেন, সঠিক সময়ে জাতীয় স্বার্থে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কেন্দ্রের মন্ত্রী গোষ্ঠী তাদের চতুর্থ বৈঠকে লকডাউন বাড়ানো হোক বা না হোক সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখারই প্রস্তাব দেন। বেশিরভাগ স্কুল এবং কলেজেই আর কিছু দিন বাদে গ্রীষ্মের ছুটি থাকারও কথা।

মন্ত্রীদের আরও পরামর্শ যে, সাধারণত যে সমস্ত জায়গাগুলিতে জনসাধারণের সমাগমের প্রবণতা রয়েছে যেমন—ধর্মীয় কেন্দ্রগুলি, তাদের নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা উচিত। প্রয়োজনে ড্রোন উড়িয়ে বিশেষ তদারকির পরামর্শও দেওয়া হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সভাপতিত্বে ওই বৈঠকে পরামর্শ দেওয়া হয়, ধর্মীয় কেন্দ্র এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি শপিংমলগুলিকেও কমপক্ষে আরও ৪ সপ্তাহ কাজ শুরু করতে দেওয়া উচিত নয়।

পিডিএসও/হেলাল