২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর রেকর্ড ৬ হাজার

প্রকাশ : ০৪ এপ্রিল ২০২০, ০৮:৩৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রতি মিনিটে করোনাভাইরাস কেড়ে নিচ্ছে চারটির বেশি প্রাণ। ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে মৃত্যু হয়েছে রেকর্ড ৬ হাজার মানুষের। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা ছাড়াল ৫৩ হাজার। বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ৫৩ হাজার ছাড়াল। গতকাল শুক্রবার পর্যন্ত বিশ্বে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৩ হাজার ১৯৫ জনে। আর এ ভাইরাসটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১০ লাখ ১৫ হাজারের বেশি মানুষ। এক দিনে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে ফ্রান্সে।

আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারস এ তথ্য জানিয়েছে। গতকাল বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৯টায় সংস্থাটির ওয়েবসাইটে দেখা যায়, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১০ লাখ ১৫ হাজার ৭২৮ জন। আর ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়ে এখন পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন ৫৩ হাজার ২০২ জন। ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে এ ভাইরাটি প্রথমে দেখা যায়। পরে ভাইরাসটি মহামারি আকারে বিশ্বের ১৯৯টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে।

বর্তমানে এ ভাইরাসটিতে সবচেয়ে বেশি সংক্রমিত দেশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র সবার ওপরে রয়েছে। আর মৃত্যুর দিক দিয়ে ইতালি এগিয়ে রয়েছে। এর পরেই অবস্থান স্পেনের। এ দিক থেকে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। করোনায় আক্রান্তের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রই এখন সবার ওপরে। দেশটিতে ২ লাখ ৩৫ হাজার ৭৪৭ জনের দেহে কোভিড-১৯ ধরা পড়েছে। মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৫ হাজার ৬২০ জনে।

করোনাভাইরাসের উদ্ভব হয়েছিল চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে। গত সপ্তাহে উহানকে করোনামুক্ত ঘোষণা করে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়। কিন্তু গত বৃহস্পতিবার উহানে করোনায় নতুন করে চারজন প্রাণ হারিযেছেন। এ পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ধাপের বিস্তারের আশঙ্কায় দেশটির সরকার নতুন করে আবার বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে। গত বৃহস্পতিবার উহানে করোনায় চারজনের প্রাণহানির পর স্থানীয়দের আবার ঘরে বন্দি এবং যথাযথ সুরক্ষা ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ফ্রান্সে করোনায় এক দিনে রেকর্ড ১৩৫৫ জনের মৃত্যু

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ফ্রান্সে এক দিনে রেকর্ড ১ হাজার ৩৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। দেশটির প্রধান মেডিকেল উপদেষ্টা গত বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, হাসপাতালে ৪৭১ ও রিটায়ারমেন্ট হোমে ৮৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। খবর রয়টার্স, আল-জাজিরা, ফ্রান্স টুয়েন্টি ফোরের। ফ্রান্সের স্বাস্থ্য মহাপরিচালক জেরোম সলোমন করোনা নিয়ে দেশটির প্রতিদিনের ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানান। এই প্রথম দেশটিতে হাসপাতাল ও রিটায়ারমেন্ট হোমে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের সংখ্যা একসঙ্গে জানানো হলো। এতদিন শুধু হাসপাতালে মারা যাওয়াদের সংখ্যা বলছিল ফ্রান্স।

তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে দেখা গেছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে নার্সিং হোমগুলোতে প্রায় ৮৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আগের দিনের চেয়ে হাসপাতালে মৃত্যুর সংখ্যা ১২ শতাংশ বেড়েছে বলেও জানান তিনি। করোনায় আক্রান্ত হয়ে ফ্রান্সের হাসপাতালগুলোতে এখন পর্যন্ত ৪ হাজার ৫০৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর নার্সিং হোমে মারা যাওয়াদের সংখ্যা যোগ করার পর ফ্রান্সে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৩৮৭ জনে।

সলোমন সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, নার্সিং হোমে করোনায় মারা যাওয়া রোগীর সংখ্যা আরো বেশি হতে পারে; কারণ দেশটির কর্তৃপক্ষ এখন পুরো দেশের রিটায়ারমেন্ট হোম থেকে তথ্য সংগ্রহ করছে। এদিকে দেশটিতে নতুন করে ২ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। সবমিলিয়ে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৯ হাজার ১০৫ জনে। আর সুস্থ হয়ে ওঠেছে ৬ হাজার ৩৯৯ জন।

যুক্তরাষ্ট্রে এক দিনে ১,১৬৯ জনের মৃত্যু

যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-১৯ ভাইরাসে ১ হাজার ১৬৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিশ্বব্যাপী এ মহামারি ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে যেকোনো দেশে এক দিনের মৃত্যুর ক্ষেত্রে এ সংখ্যা সর্বোচ্চ। গত বৃহস্পতিবার জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটি এ তথ্য জানায়। খবর এএফপির।

এর আগে করোনাভাইরাসে এক দিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড ছিল ইতালির। গত ২৭ মার্চ দেশটিতে এ মহামারি ভাইরাসে ৯৬৯ জনের মৃত্যু হয়। এ বৈশ্বিক মহামারি ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে ৫ হাজার ৯২৬ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে মৃত্যুর ক্ষেত্রে বর্তমানে ইতালিতে সবচেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে এ ভাইরাসে ১৩ হাজার ৯১৫ জন প্রাণ হারিয়েছে। এরপরের অবস্থানে রয়েছে স্পেন। সেখানে করোনাভাইরাসে ১০ হাজার ৩ জন মারা গেছে।

জনস হপকিন্স জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ ভাইরাসে নতুন করে আরো ৩০ হাজারের বেশি লোক আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে সরকারি হিসাব অনুযায়ী এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২ লাখ ৪৩ হাজারে দাঁড়াল।

নিউইয়র্ক সিটি স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ গত বৃহস্পতিবার জানায়, আমেরিকায় করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার উৎপত্তিকেন্দ্র এ নগরীতে করোনাভাইরাসে প্রায় ৫০ হাজার আক্রান্ত ও ১ হাজার ৫০০ জনের বেশি মারা গেছে।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক ব্রিফিংয়ে বলেন, আমরা এখন প্রতিদিন লক্ষাধিক মানুষের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করছি। এ সংখ্যা বিশ্বের অন্য যেকোনো দেশের চেয়ে অনেক বেশি। যুক্তরাষ্ট্রে এ ভাইরাসে ১ লাখ থেকে ২ লাখ ৪০ হাজার মানুষ মারা যেতে পারে বলে হোয়াইট হাউস ধারণা করছে।

পিডিএসও/তাজ