ডার্ক ওয়েবে শিশু পর্নের ভিডিও, বিশ্বজুড়ে ৩ শতাধিক গ্রেফতার

প্রকাশ : ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ২১:০৯

অনলাইন ডেস্ক

ক্রিপ্টোকারেন্সি বিটকয়েনের লেনদেনের সূত্র ধরে ‘ডার্ক ওয়েবে শিশু পর্নের বড় বাজারের’ খোঁজ পেয়েছে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া এবং জার্মানির সমন্বয়ে গঠিত একটি আন্তর্জাতিক টাস্কফোর্স। পরে তা উচ্ছেদের পর বিভিন্ন দেশে ৩ শতাধিক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ওয়েলকাম টু ভিডিও নামে ওই পর্নসাইটে শিশু নিপীড়নের দুই লাখের বেশি ভিডিও রয়েছে। এই পর্নোসাইট চালানোর দায়ে ৯ ধরনের অভিযোগে দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিক জং উ সনের (২৩) বিরুদ্ধে গত বুধবার বিচার শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্রের আদালত। সন কোরিয়াতে দোষী সাব্যস্ত হয়ে ২৫ বছরের দণ্ড ভোগ করছেন।

এসব পর্ন ভিডিওর সন্দেহভাজন ব্যবহারকারী হিসেবে ৩৩৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরা দক্ষিণ কোরিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, আয়ারল্যান্ড, জার্মানি, স্পেন, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, চেকরিপাবলিক এবং কানাডাসহ ১৩ দেশের অধিবাসী।

এক শিশু যৌন নিপীড়নকারীর বিষয়ে তদন্ত করতে গিয়ে গত বছর ডার্ক ওয়েবে এই সাইটের সন্ধান পেয়ে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া এবং জার্মানির সংস্থার সমন্বয়ে গঠিত একটি আন্তর্জাতিক টাস্কফোর্স তিন বছর কাজ করার পর ক্রিপ্টোকারেন্সি বিটকয়েন লেনদেনের সূত্র ধরে দক্ষিণ কোরিয়ায় এই ডার্কনেটের সার্ভার শনাক্ত করে।

পরে সেখানকার পুলিশের সহায়তায় এই সার্ভার জব্দ করে অ্যাডমিনিস্ট্রেটর সনকে গ্রেফতার করা হয়। প্রায় আট টেরাবাইটের সার্ভারের কনটেন্ট বিশ্লেষণ করে যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলেন, এতে আড়াই লাখের বেশি ভিডিও আছে, যার ৪৫ শতাংশেই নতুন অর্থাৎ ওয়েবে সেগুলোর অস্তিত্ব কখনো ছিল না।

যুক্তরাষ্ট্রের কৌঁসুলি জেসি কে লিউ বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও বিদেশি আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার উদ্যোগে এ অভিযানের মামলাটি চালানোর জন্য মার্কিন বিশ্বজুড়ে শিশুরা নিরাপদ ও ক্ষতিগ্রস্ত শিশুদের জন্য তহবিল জোগাড় হয়েছে। এ ধরনের অপরাধীদের গ্রেফতার করে তাদের ভয়াবহ অপরাধের উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিতে দেশে-বিদেশে এবং ডার্কনেটের ভেতরে-বাইরে অভিযান চলবে।

পিডিএসও/তাজ