ডব্লিউএইচও’র প্রতিবেদন

আত্মহত্যা : প্রতি ৪০ সেকেন্ডে একজনের মৃত্যু হয়

প্রকাশ : ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:০৬ | আপডেট : ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:২৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বিশ্বজুড়ে প্রতি ৪০ সেকেন্ডে একজন মানুষ নিজের প্রাণ নিয়ে নিচ্ছেন আর প্রতি বছর আত্মহত্যায় যুদ্ধের চেয়েও বেশি লোক মারা যায়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সোমবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব কথা বলা হয়েছে।

ফাঁসি দিয়ে, বিষ খেয়ে ও নিজেকে গুলি করে মেরে ফেলাই আত্মহত্যার সবচেয়ে প্রচলিত পদ্ধতি বলে প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে। জনগণকে চাপ সামলাতে সহযোগিতা করার মাধ্যমে আত্মহত্যার প্রবণতা হ্রাসে ‘আত্মহত্যা প্রতিরোধ পরিকল্পনা’ গ্রহণ করার জন্য সরকারগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ডব্লিউএইচও।

সংস্থাটির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আত্মহত্যা একটি বৈশ্বিক জনস্বাস্থ্য ইস্যু। বিশ্বের সব অঞ্চলের সব বয়সী ও লিঙ্গের মানুষ এতে আক্রান্ত (এবং) প্রতিটি প্রাণহানীতেই প্রভূত ক্ষতি হয়।

এতে বলা হয়েছে, বিশ্বব্যাপী সড়ক দুর্ঘটনার পর আত্মহত্যাই ১৫ থেকে ২৯ বছর বয়সীদের মৃত্যুর দ্বিতীয় প্রধান কারণ। ১৫ থেকে ১৯ বছর বয়সী কিশোরীদের ক্ষেত্রে মাতৃত্বজনিত মৃত্যুর পর আত্মহত্যা দ্বিতীয় প্রধান ঘাতক, আর কিশোরদের ক্ষেত্রে সড়ক দুর্ঘটনা ও সহিংসতার পর আত্মহত্যায় মৃত্যু সবচেয়ে বেশি।

প্রতি বছর প্রায় আট লাখ লোক আত্মহত্যায় মারা যায়। এ সংখ্যাটি প্রতি বছর ম্যালেরিয়া বা স্তন্য ক্যান্সার অথবা যুদ্ধ বা নরহত্যার ঘটনায় মারা যাওয়া লোকদের সংখ্যার চেয়েও বেশি। সূত্র : রয়টার্স

পিডিএসও/হেলাল