দিলীপ ঘোষকে মারতে বাংলাদেশি সুপারি কিলার

প্রকাশ : ২২ আগস্ট ২০১৯, ১৯:০২

পার্থ মুখোপাধ্যায়, কলকাতা

হামলার আশঙ্কায় বাড়ি বদল করলেন বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সভাপতি। দিলীপ ঘোষ নিজেই বলেছেন, বাংলাদেশের একটি গ্রুপকে সুপারি ( খুন করার জন্যে টাকার বিনিময়ে খুনি নিয়োগ ) দেওয়া হয়েছে বলে জানতে পেরেছেন।

ওয়াই প্লাস ক্যাটগরির নিরাপত্তা পান দিলীপ ঘোষ। তবে তার নিরাপত্তা আগের চেয়ে অনেকটা বেড়ে গিয়েছে। তার ওপরে হামলার আশঙ্কায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে রিপোর্ট দিয়েছে গোয়েন্দা দফতর।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, দিলীপ ঘোষের ওপরে পরিকল্পনা করে হামলা চালাতে পারে দুষ্কৃতিকারীরা। তার নিরাপত্তা নিয়ে সে কারণে আর ঝুঁকি নিতে নারাজ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। দিল্লির নির্দেশেই ঠিকানা বদল করেছেন দিলীপ ঘোষ। নিউটাউনের বাড়ি থেকে উঠে এসেছেন কলকাতা লাগোয়া সল্টলেকে। তার কথায়, আগের বাড়িটা ছোট ছিল। নিরাপত্তা রক্ষীদের থাকার জায়গা অমিল হচ্ছিল। অনেকেই তার কাছে আসেন, গাড়ি রাখতে অসুবিধা হচ্ছিল। তাছাড়া লোকজনের সঙ্গে কথা বলার জন্য একটা বড়ো ঘরও দরকার।

এছাড়া তার ওপরে হামলার চেষ্টা হচ্ছে বলেও দাবি করেছেন বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সভাপতি। তিনি শুনেছেন, বাংলাদেশের একটি গ্রুপকে সুপারি দেওয়া হয়েছে। কারা তাকে মারতে চাইছে? সরাসরি কারও নাম নেননি রাজ্য সভাপতি। তার মন্তব্য, বিজেপির উত্থান সহ্য করতে পারছেন না অনেকে। তারাই এসব করছে। লোকসভা ভোটের আগে থেকেই তো নানা সময়ে হামলা হয়েছে।

সূত্রের খবর, ওয়াই প্লাস থেকে বাড়িয়ে জেড ক্যাটগরির নিরাপত্তা দেওয়া হতে পারে দিলীপ ঘোষকে। ২০২১ সালে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির অন্যতম মুখই দিলীপ ঘোষ। বিজেপির রাজ্য সভাপতি জানিয়েছেন, নিরাপত্তা বাড়ার ব্যাপারে তার জানা নেই। তবে যেভাবে রক্ষীর সংখ্যা বাড়ছে, তাতে একটা ইঙ্গিত তো থাকছে। 

পিডিএসও/তাজ