ঈদের আগে কারফিউ কাশ্মীরে

প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০১৯, ১৯:৩১

অনলাইন ডেস্ক

কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা তুলে নেওয়ার সাত দিনে অঞ্চলটির কোথাও কোনো হিংসার ঘটনা ঘটেনি; একটা গুলিও চলেনি বলে বিবৃতি দিয়েছিল জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ। তবু রোববার আবারও ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এর ফলে কাশ্মীরবাসীকে সোমবার ঈদের দিনও অবরুদ্ধ অবস্থায় কাটাতে হবে।

জম্মু ও কাশ্মীরের রাজধানী শ্রীনগরের সাধারণ মানুষকে জরুরি জিনিস কিনে বাড়ি ঢুকে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দোকানদারদেরও বলা হয়েছে, দোকান বন্ধ করে বাড়ি চলে যেতে।

ভারতের সংবাদমসাধ্যম দ্য ওয়্যাল বলছে, শ্রীনগরে মোতায়েন করা হয়েছে প্রচুর নিরাপত্তারক্ষী। তারা রাস্তায় টহল দিচ্ছেন। গোটা শহর স্তব্ধ হয়ে যাচ্ছে। তবে কী কারণে এই ১৪৪ ধারা জারি করা হলো, সে ব্যাপারে সেনা বা পুলিশের পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি।

এর আগে ঈদুল আযহা উপলক্ষে টেলিফোন, মোবাইল, ইন্টারনেটসহ যোগাযোগ মাধ্যমের ওপর থেকে সাময়িকভাবে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছিল কেন্দ্র। খুলেছিল স্কুল-কলেজ। এর মধ্যে ঈদের আগের দিন রোববার হঠাৎ জরুরি অবস্থায় ফের অবরুদ্ধ হয়ে পড়ল এই মুহূর্তে পৃথিবীর সবচেয়ে সামরিকীকরণ হওয়া অঞ্চলটি।

জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের প্রধান দিলবাগ সিং জানান, গত কদিনে বড় কোনো হিংসার ঘটনা ঘটেনি। এমনকি পরিস্থিতি স্বাভাবিক দক্ষিণ কাশ্মীরেও। সোমবার ইদের আগে রাজ্যের আরো কিছু জায়গায় নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হবে।

জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের পক্ষ থেকে টুইট করে জানানো হয়, রাজ্য এখন হিংসামুক্ত। অযথা গুজব বা উস্কানিমূলক কথাবার্তায় কান দেবেন না।

পিডিএসও/হেলাল