জাতিসংঘের প্রতিবেদন

বিশ্বে বাড়ছে ক্ষুধার্ত মানুষের সংখ্যা

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০:৩৯

অনলাইন ডেস্ক
ama ami

জলবায়ু পরিবর্তন ও সংঘাত-সংঘর্ষের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বিশ্বব্যাপী বাড়ছে ক্ষুধার্ত মানুষের সংখ্যা। জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এমন চিত্র। বলা হয়, বিশ্বে প্রতি ৯ জন মানুষের মধ্যে একজন প্রয়োজনীয় পুষ্টি পাচ্ছেন না। বিগত যেকোনো  দশকের তুলনায় ২০১৭ সালে বিশ্বে অপুষ্টির শিকার হওয়া মানুষের সংখ্যা বেড়েছে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করে সংস্থাটি।

জলবায়ু পরিবর্তনের ভয়াবহ প্রভাব বিশ্বব্যাপী। বাড়ছে খরা, বন্যাসহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগ। আর এসব দুর্যোগই বিশ্বে খাদ্য উৎপাদনে বড় বাধা হিসেবে কাজ করছে। সৃষ্টি করছে চরম খাদ্য সংকট।  

বিশ্বে খাদ্য নিরাপত্তা ও পুষ্টি নিয়ে জাতিসংঘের প্রতিবেদনে উঠে আসে ক্ষুধার্ত বিশ্বের চিত্র। এতে  বলা হয়, বিশ্বজুড়ে ক্ষুধার্ত মানুষের সংখ্যা কমে আসার পর এখন পরপর তিন বছর তা আবার বেড়েছে। ২০১৭ সালে বিশ্বে ৮২ কোটি ১০ লাখ মানুষ অপুষ্টির শিকার হয়েছে। ৫ বছরের কম বয়সী প্রায় ১৫ কোটি শিশুর স্বাভাবিক দৈহিক বিকাশ আটকে আছে পুষ্টিহীনতায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণেই এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। বিভিন্ন দেশে ব্যাহত হচ্ছে শস্য উৎপাদন। তবে শুধু জলবায়ু পরিবর্তনই নয়—যুদ্ধ, সংঘাত আর সহিংসতাও বাড়িয়ে দিচ্ছে বিশ্বে ক্ষুধার্ত মানুষের সংখ্যা। 

এ সঙ্কট নিরসনে জীবাশ্ম জ্বালানি ব্যবহারের ওপর জোর দিয়েছেন বিশ্লেষকরা। একইসঙ্গে  বিশ্বের  সব দেশকে সমন্বিত উদ্যোগ নেয়ার তাগিদ দিয়েছে জাতিসংঘ। জাতিসংঘের পাশাপাশি বিশ্ব খাদ্য ও কৃষি সংস্থা, বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি, ইউনিসেফ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিল সম্মিলিতভাবে এ প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে।

পিডিএসও/হেলাল