আইসিসির বিচারকদের নিষেধাজ্ঞার হুমকি যুক্তরাষ্ট্রের

প্রকাশ | ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০:৪১

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্র বলছে, তারা আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি)-এর বিরুদ্ধে আগ্রাসী পদক্ষেপ নেবে। আফগানিস্তানে মার্কিনিদের দ্বারা সংগঠিত যুদ্ধাপরাধ তদন্ত করা হলে আইসিসির বিচারকদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন ওয়াশিংটনে এক ভাষণে এই ঘোষণা দেবেন বলে কথা রয়েছে। হোয়াইট হাউজের যোগ দেয়ার পর এটি তার প্রথম গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ।

জন বোল্টনের ওই ভাষণের খসড়া দেখতে পেরেছে ‍যুক্তরাজ্যভিত্তিক বার্তাসংস্থা রয়টার্স। ওই ভাষণে বোল্টন বলবেন, অবৈধ আদালতের অন্যায় বিচার প্রক্রিয়া থেকে আমাদের নাগরিক ও মিত্রদের রক্ষায় যুক্তরাষ্ট্র যেকোনও উপায় অবলম্বন করবে। এছাড়া ইসরায়েলের বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য আইসিসিতে ফিলিস্তিনের প্রচেষ্টার কারণে ওয়াশিংটনে ফিলিস্তিন স্বাধীনতা সংস্থা (পিএলও)-এর অফিস বন্ধ করে দেয়ার ঘোষণাও দিতে পারেন বোল্টন।

এর আগে জাতিসংঘের ফিলিস্তিনি শরণার্থীবিষয়ক সংস্থাকে সব ধরনের তহবিল দেয়া বন্ধের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। সবশেষ গত শনিবার ফিলিস্তিনের হাসপাতালগুলোর জন্য বরাদ্দকৃত ২৫ মিলিয়ন ডলারের আর্থিক সহায়তা বাতিল করেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

২০১৬ সালে আইসিসি জানায়, আফগানিস্তানে বন্দিদের নির্যাতনের মাধ্যমে মার্কিন সেনাবাহিনী ও সিআইএ যুদ্ধাপরাধ সংঘটিত করে থাকতে পারে। যুদ্ধাপরাধ, মানবতাবিরোধী অপরাধ এবং গণহত্যার বিচার করতে বিশ্বের প্রথম স্থায়ী আদালত আইসিসি ২০০২ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়। বিশ্বের ১২০টির বেশি দেশ আইসিসির সদস্য। তবে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া এবং চীনের মতো সুপার পাওয়ারগুলো আইসিসির সদস্য নয়।

পিডিএসও/হেলাল