`ভারত যদি একটি পদক্ষেপ নেয়, আমরা দুইটি পদক্ষেপ নেবো'

প্রকাশ : ২৬ জুলাই ২০১৮, ২০:৫৪ | আপডেট : ২৬ জুলাই ২০১৮, ২২:০৬

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানের পরবর্তী সরকারের নেতৃত্বে আসতে যাওয়া পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খান বলেছেন, পিটিআই বৃহত্তম দল হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে। তাতে কোনো সন্দেহ নেই আমরা নেতৃত্বে যাচ্ছি। সে সঙ্গে এটাও বলছি, আমি ক্ষমতায় গেলে সত্যিই ভারতের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক ঠিক করবো। ভারত যদি একটি পদক্ষেপ নেয়, আমরা দুইটি পদক্ষেপ নেবো সম্পর্ক ভালো করতে।

বুধবার অনুষ্ঠিত হওয়া দেশটির সাধারণ নির্বাচনের ফলাফল এখনও ঘোষণা না হলেও বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তিনি জাতির উদ্দেশে ভাষণে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে এসব কথা বলেন।

পাকিস্তানের জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক এই অধিনায়ক বলেন, আমি ক্রিকেটের কারণে ভারতের অনেক জায়গায় ভ্রমণ করেছি। জানি তারা খুব অতিথিপরায়ণ। তাই ভারতের সঙ্গে আমি ভালো সম্পর্ক চাই। যদিও ভারত নিয়ে আমি একটু হতাশ। কেননা ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আমাকে বলিউডের ভিলেন বানিয়ে দিয়েছিল। তারপরও আমিই ক্ষমতায় আসতে যাচ্ছি।

৬৫ বছর বয়সী ওই রাজনীতিবিদ জাতির উদ্দেশে তার ৩০ মিনিটের ভাষণে এও বলেন, কে আমাকে কি করেছে সেটা আমি দেখবো না। আমি নমনীয়ভাবে চলবো। এখন আমার স্বপ্ন পূরণের সময়। পাকিস্তান নিয়ে ভাবার দিন। ক্ষমতায় আসছি আমি এটাই আমার পাওয়া। সে জন্য সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ করছি।

ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে প্রায় ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে যাচ্ছে। তারপরও যান্ত্রিক ত্রুটির কারণ উল্লেখ করে এখনও পর্যন্ত চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করতে পারেনি পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন। ভোট গণনার ভিত্তিতে পাওয়া বেসরকারি ফল অনুযায়ী, ১২০টি আসনে এগিয়ে রয়েছে ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ।

দেশের ২৭২টি আসনের (বর্তমানে ২৭০- দুইটি স্থগিত) নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে একটি দলকে কমপক্ষে ১৩৭টি আসনে জয় নিশ্চিত করতে হবে। আর সে দিকেই এগিয়ে যাচ্ছেন ইমরান।

পিডিএসও/রিহাব