পাকিস্তানে কড়া নিরাপত্তা আর উৎকণ্ঠার মাঝে ভোট

প্রকাশ : ২৫ জুলাই ২০১৮, ১১:৩১

অনলাইন ডেস্ক

আজ বুধবার পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত হচ্ছে দেশটির ১১তম জাতীয় নির্বাচন। দেশজুড়ে ভোট দিতে ভোট কেন্দ্রে হাজির হয়েছেন লাখ লাখ মানুষ। প্রথম ভোটটি পড়েছে খাইবার পাখতুনখোয়ার চারসাড্ডায়। দ্য ডনের খবরে বলা হয়, নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা চলবে মূলত প্রধান তিন দলের মধ্যে—পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন), পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) ও পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)।

স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকেই ভোটকেন্দ্রগুলো খুলে দেয়া হয়েছে। অনেক উৎসাহী ভোটার অবশ্য তারও আগে, ৭টা থেকেই ভোট দেয়ার জন্য কেন্দ্রের বাইরে অপেক্ষা করছিলেন। পিএমএল-এনের বর্তমান প্রধান শাহবাজ শরিফ প্রথম দিকেই নিজের ভোট দিয়ে ফেলেছেন। লাহোরের মডেল টাউনে এক কেন্দ্রের বাইরে গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি দেশবাসীর প্রতি পিএমএল-এনকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানান।

এদিকে আল জাজিরা জানিয়েছে, নির্বাচনকে ঘিরে তুমুল উত্তেজনা বিরাজ থাকায় দেশজুড়ে মোতায়েন করা হয়েছে রেকর্ড সংখ্যক নিরাপত্তাবাহিনী। পুরো দেশজুড়ে মোতায়েন করা হয়েছে ৮ লাখ পুলিশ ও সেনা সদস্য। 

নির্বাচন কমিশন অনুসারে, সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ভোটকেন্দ্র খোলা থাকবে। জাতীয় নির্বাচন কমিশন অনুসারে, পাকিস্তানজুড়ে মোট ৮৫ হাজার  ভোটকেন্দ্র। নারী ও পুরুষদের জন্য সমন্বিত ভোটকেন্দ্র রয়েছে ৪০ হাজার ৬৩২টি। এছাড়া, কেবল নারীদের জন্য রয়েছে ২৩ হাজার ১০৪টি ভোটকেন্দ্র ও পুরুষদের জন্য রয়েছে ২১ হাজার, ৩২২টি ভোটকেন্দ্র। প্রায় ১৭ হাজার ৭টি ভোটকেন্দ্র চরম মাত্রায় স্পর্শকাতর হিসেবে ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

পিডিএসও/হেলাল