৫ অবৈধ সন্তানের বাবা ইমরান খান!

প্রকাশ : ১৪ জুলাই ২০১৮, ১০:০১

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তান বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ সাংবাদিক রেহাম ছিলেন ইমরান খানের দ্বিতীয় স্ত্রী। ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে তাদের বিয়ে হয় এবং ১০ মাসের মাথায় অক্টোবরে এ জুটির বিচ্ছেদ ঘটে।ইমরানের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর রেহাম আত্মজীবনী লেখা শুরু করেন।

‘রেহাম খান’ নামের ওই বইতে তিনি ইমরান খানের সঙ্গে তার ১০ মাসের বিবাহিত জীবনের বিস্তারিত বর্ণনা দিয়েছেন। সেইসঙ্গে ইমরানের যৌনজীবন এবং ওই সময়ে তার রাজনৈতিক কর্মকান্ড নিয়েও বইতে অনেক কথা বলেছেন রেহাম। বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যে বইটি প্রকাশ হয়েছে। মার্কিন ই-কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজনেও বইটি পাওয়া যাচ্ছে। বইয়ের একটি অধ্যায়ে তিনি বিয়ের পর ইমরান খানের সঙ্গে তার একটি কথোপকথন হুবহু তুলে ধরেন।

সেখানে তিনি দাবি করেন, ইমরান তার অবৈধ পাঁচ সন্তান থাকার কথা স্বীকার করেছেন। যাদের একাধিকজন ভারতীয় এবং সবচেয়ে বড়জনের বয়স ৩৪। নিজেদের বিবাহিত জীবন রক্ষা করতে ওইসব নারী ইমরানের সঙ্গে তাদের সন্তান থাকার বিষয়টি জনসম্মুখে আনছেন না বলেও দাবি করেন রেহাম।

বইতে কথোপকথন :

রেহাম : কি— তোমার পাঁচটি অবৈধ সন্তান আছে? তুমি কিভাবে জানো?

ইমরান : তাদের মায়েরা আমাকে বলেছে

রেহাম : তারা সবাই শ্বেতাঙ্গ?

ইমরান : না, কেউ কেউ ভারতীয়। সবচেয়ে বড়জনের বয়স এখন ৩৪।

এই বই লেখার কারণ ব্যাখ্যায় রেহাম বলেন, হয়তো তার অভিজ্ঞতা অন্য কারো কাজে লাগবে। ‘আমি আমার ভুলগুলো শেয়ার করেছি। যাকে আমি বিয়ে করেছিলাম, তাকে কেন বিয়ে করেছিলাম। এসব এমন কিছু যেগুলো থেকে মেয়েদের সচেতন থাকা উচিত। আমার লক্ষ্য সচেতনতা বৃদ্ধি করা এবং মানুষ হিসেবে আমরা কোথায় ভুল করছি সে সম্পর্কে পরামর্শ দেওয়া। যখন তারা ভোট দিতে যাবে, এটা তাদের সাহায্য করবে।’

অবশ্য রেহামের এই বই নিয়ে গত মাসেই হইচই পড়ে গিয়েছিল। জুনে রেহামের পান্ডুলিপির কিছু অংশ অনলাইনে ফাঁস হয়েছিল। যা নিয়ে পাকিস্তানের রাজনৈতিক অঙ্গনে ঝড় উঠে। পিটিআইর অনেক নেতা মনে করেন, অন্য দল বিশেষ করে অযোগ্য ঘোষিত প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের দলের কাছ থেকে অর্থের বিনিময়ে ইমরানকে ছোট করতে তার সাবেক স্ত্রী রেহাম এই বই লিখেছেন।

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে ইমরান খানের চরিত্রকে কলুষিত করতেই রেহাম অর্থের বিনিময়ে এ কাজ করেছেন বলে তখন অনেক নেতা টুইট করেছিলেন।

পিডিএসও/তাজ